ফাইল ছবি

নয়াদিল্লি: মোদীর মন্ত্রিসভায় আসছেন অমিত শাহ৷ প্রতিরক্ষা, স্বরাষ্ট্র বা অর্থমন্ত্রক পেতে পারেন অমিত৷ তবে অর্থমন্ত্রকের দিকেই পাল্লা ভারি বলে জানা গিয়েছে৷এদিকে মন্ত্রী হওয়ার জন্য তাঁকে শুভেচ্ছা জানিয়ে ট্যুইট করেন গুজরাতের রাজ্য বিজেপি সভাপতি৷ তারপরেই বিষয়টি নিয়ে নিশ্চিত হয়ে যান রাজনৈতিক মহল৷

এদিকে, অমিত শাহের জায়গায় সর্বভারতীয় বিজেপি সভাপতির দায়িত্ব সামলাবেন জেপি নাড্ডা৷ এছাড়াও জানা গিয়েছে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হচ্ছেন এস জয়শঙ্কর৷ মোদীর সঙ্গে এদিন শপথ নেবেন ৪৪জন মন্ত্রী৷ এদিন মন্ত্রিসভার সদস্য হিসেবে বেশ কয়েকটি নতুন মুখ দেখা যাওয়ার সম্ভাবনা৷ আসানসোলের সাংসদ বাবুল সুপ্রিয়কে ফের দেখা যাবে দ্বিতীয় মোদী সরকারের মন্ত্রিসভায়৷ শপথ গ্রহণের আগে ফোন যায় তাঁর কাছে৷

আরও পড়ুন : প্রবীণ নাগরিকদের জন্য পেনশন, একাধিক ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রী জগন রেড্ডির

বিজেপি সূত্রে খবর, বাবুলকে সাড়ে চারটের সময় ৭ জনকল্যাণ মার্গে উপস্থিত থাকার কথা জানানো হয়েছে৷ ভাবী মন্ত্রীদের সকলকে এখানেই ডাকা হয়েছে৷ প্রধানমন্ত্রী নিজেও সেখানে আসবেন৷ ভাবী মন্ত্রীদের সঙ্গে কথা বলবেন৷ চা চক্র সেরে সকলে এরপর রওনা দেবেন রাষ্ট্রপতি ভবনের দিকে৷

বাবুল সুপ্রিয় প্রথম মোদী সরকারের আমলে একাধিক মন্ত্রকের রাষ্ট্রমন্ত্রী ছিলেন৷ মোদীর দ্বিতীয় ইনিংসে তাঁকে মন্ত্রিসভায় রাখা হলেও আসানসোলের সাংসদকে পূর্ণমন্ত্রী করা হবে কিনা তা জানা যায়নি৷ সূত্রের খবর, বাবুলকে এবারও গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রকের দায়িত্ব দেওয়া হতে পারে৷ তবে সেই মন্ত্রক কী তা জানা যাবে শপথ গ্রহণের পর৷

এবারের লোকসভা নির্বাচনে বাংলা থেকে দুর্দান্ত ফল করেছে বিজেপি৷ মোদী ঝড়ের দাপটে ৪২টির মধ্যে ১৮টি আসনে জয়ী হন গেরুয়া শিবিরের প্রার্থীরা৷ ফলে বঙ্গ বিজেপি কর্মীদের আশা, এবার বাংলা থেকে কম করেও চার জনকে তো মন্ত্রিসভায় জায়গা দিতেই পারবেন মোদী-শাহ৷ তার উপর ২০২১ এ রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচন৷ ফলে বাংলা থেকে বেশি সংখ্যক সাংসদকে মন্ত্রী করা হলে রাজ্যবাসীর কাছে সদর্থক বার্তা পৌঁছবে৷

আরও পড়ুন : জাতীয় নমুনা সমীক্ষা সংস্থাকে (NSSO) তুলে দিচ্ছে মোদী সরকার

বাবুল ছাড়াও আর দুটি নাম মন্ত্রিসভার তালিকায় ঘোরাফেরা করছে বলে সূত্রের খবর৷ একটি শান্তনু ঠাকুর৷ দ্বিতীয়টি দেবশ্রী চৌধুরী৷ বনগাঁ থেকে জিতে সাংসদ হন শান্তনু ঠাকুর৷ শান্তনুর জয়ে মতুয়া ভোটব্যাংকে থাবা বসিয়েছে গেরুয়া শিবির৷ বিধানসভা নির্বাচনে সেই ভোটব্যাংককে ধরে রাখতে শান্তনুকে নিয়ে আসা হতে পারে মন্ত্রিসভায়৷ রায়গঞ্জের প্রার্থী দেবশ্রী চৌধুরির হয়ে প্রচারে এসে অমিত শাহ তাঁকে মন্ত্রিসভায় ঠাঁই দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন৷

দ্বিতীয় মোদী সরকারের নয়া মন্ত্রিসভার সম্ভাব্য মন্ত্রীদের নাম নিয়ে এখনও জল্পনা চলছে৷ এই মাঝে একটি নাম চূড়ান্ত হয়ে গিয়েছে বলে খবর৷ তিনি অরবিন্দ সাওয়ন্ত৷

বিজেপির দীর্ঘদিনের সহযোগী দল শিবসেনার সাংসদ অরবিন্দ সাওয়ন্ত৷ তাঁকে মন্ত্রিসভায় ঠাঁই দিয়েছেন মোদী-শাহ জুটি৷ শিবসেনা নেতা সঞ্জয় রাউত নিজে সংবাদিকদের একথা জানান৷ বলেন, উদ্ধভ ঠাকরে নিজে অরবিন্দের নাম প্রস্তাব করেছিলেন৷ বিজেপি তাতে কোনও আপত্তি জানায়নি৷ বৃহস্পতিবারই অরবিন্দ মন্ত্রী হিসাবে শপথ নেবেন৷

দেশে এবং বিদেশের একাধিক সংবাদমাধ্যমে টানা দু'দশক ধরে কাজ করেছেন । বাংলাদেশ থেকে মুখোমুখি নবনীতা চৌধুরী I