স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: পি চিদম্বরমের গ্রেফতারির পিছনে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত রাজনৈতিক প্রতিহিংসা কাজ করেছে বলে মন্তব্য করলেন কংগ্রেসের রাজ্যসভার সাংসদ তথা প্রদেশ কংগ্রেসের বর্ষীয়ান নেতা প্রদীপ ভট্টাচার্য।

চিদম্বরমের গ্রেফতারের পর তিনি বলেন, “চিদম্বরম যখন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ছিলেন তখন অমিত শাহকে সিবিআই ডেকেছিল। সেকারণেই স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হয়ে অমিত শাহ নিজের রাজনৈতিক প্রতিহিংসা চরিতার্থ করলেন। কিন্তু এটা মনে রাখতে হবে, দুটো ঘটনার পরিস্থিতির সম্পূর্ণ আলাদা। এছাড়া সংসদে দাঁড়িয়ে যেহেতু চিদম্বরম মোদী সরকারকে নাস্তানাবুদ করেন তাই তাঁকে নিশানা করা হল।”

নজিরবিহীন নাটকের শেষে, গ্রেফতার হলেন আইএনএক্স মিডিয়া দুর্নীতি মামলায় অভিযুক্ত, প্রাক্তন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী পি চিদম্বরম।

গত কয়েক দিন ধরে চলা সেই নাটক বুধবার সন্ধেয় যেন চরমে পৌঁছয়। মঙ্গলবার থেকে টানা ২৭ ঘণ্টা নিখোঁজ থাকার পরে আচমকাই কংগ্রেসের দলীয় কার্যালয়ে আত্মপ্রকাশ করেন চিদম্বরম। কয়েক মিনিটের সাংবাদিক বৈঠক করে জানিয়ে দেন, তিনি কোনও অপরাধ করেননি। এ-ও দাবি করেন, যে তিনি মোটেও ফেরার ছিলেন না, আইনি পরামর্শ নিচ্ছিলেন তাঁর উকিলদের কাছে।

নজিরবিহীন নাটকের শেষে বুধবার গ্রেফতার হলেন আইএনএক্স মিডিয়া দুর্নীতি মামলায় অভিযুক্ত, প্রাক্তন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী পি চিদম্বরম।

মঙ্গলবার থেকে টানা ২৭ ঘণ্টা নিখোঁজ থাকার পরে আচমকাই কংগ্রেসের দলীয় কার্যালয়ে আত্মপ্রকাশ করেন চিদম্বরম। কয়েক মিনিটের সাংবাদিক বৈঠক করে জানিয়ে দেন, তিনি কোনও অপরাধ করেননি। এ-ও দাবি করেন, যে তিনি মোটেও ফেরার ছিলেন না, আইনি পরামর্শ নিচ্ছিলেন তাঁর উকিলদের কাছে।

চিদম্বরম আরও বলেন, তাঁর ছেলে কার্তিকে-ও মিথ্যে ফাঁসানো হচ্ছে এই মামলায়৷ তবে তিনি জানান, সুপ্রিম কোর্টের উপর আস্থা আছে তাঁর৷ সেই কোর্টে সমস্ত তথ্য পেশ করার জন্যই গতকাল আইনজীবীদের সঙ্গে ছিলেন তিনি। সারা রাত জেগে কাগজপত্র তৈরি করছিলেন৷ ফেরার হওয়ার প্রশ্নই নেই। তাঁর কথায়, “গণতন্ত্রের ভিত্তি হল স্বাধীনতা।” অর্থাৎ আইনের সদ্ব্যবহারের অধিকার তাঁরও আছে।