প্রতীতি ঘোষ, উত্তর ২৪ পরগনা : মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সহ রাজ্য সরকারের ভূয়সী প্রশংসা করলেন রাজ্যের অর্থ মন্ত্রী অমিত মিত্র ও রাজ্যের খাদ্য মন্ত্রী জ্যোতি প্রিয় মল্লিক । তাঁরা বলেন, রাজ্য সরকার সব সময় রাজ্যের গরীব মানুষের পাশে আছে । ধর্ম জাত পাতের উর্ধ্বে উঠে গরীব মানুষের পাশে আছেন আমাদের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও আমাদের সরকার।

পাশাপাশি অমিত মিত্র বলেন, চলতি বছরে রাজ্য বাজেটে বার্ধক্য ভাতার ক্ষেত্রে ২৫০০ কোটি টাকা ধার্য করা হয়েছে । ফলে হাজার হাজার বৃদ্ধ মানুষ উপকৃত হবেন । সম্মানের সঙ্গে বাঁচতে পারবেন ।

উত্তর ২৪ পরগনার খড়দহ সংস্কৃতি মঞ্চের উদ্যোগে প্রতিবন্ধী নাগরিকদের সরঞ্জাম প্রদান অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়ে একথাই বলেন রাজ্যের অর্থ ও শিল্প মন্ত্রী তথা খড়দহের বিধায়ক ড: অমিত মিত্র ও খাদ্য মন্ত্রী জ্যোতি প্রিয় মল্লিক।

প্রতিবন্ধী মানুষজনের পাশে দাঁড়াতে খড়দহ সাংস্কৃতিক মঞ্চের উদ্যোগে তাদের হাতে তুলে দেওয়া হল বিভিন্ন ধরনের প্রতিবন্ধী সরঞ্জাম। এই সরঞ্জামগুলির মধ্যে ছিল হুইলচেয়ার‘, শ্রবণযন্ত্র, লাঠি, সেলাই মেশিন, চায়ের কেটলি। আর্থিকভাবে পিছিয়ে পড়া মহিলাদের দেওয়া হল সেলাই মেশিন, যাতে তারা নিজেরা স্বনির্ভর হয়ে বাঁচতে পারে । পুরুষদের দেওয়া হলো রিক্সা। এছাড়াও মহিলা পুরুষ নির্বিশেষে স্বনির্ভর করতে দরিদ্র প্রতিবন্ধী নাগরিকদের বেশ কিছু চায়ের কেটলি তুলে দেওয়া হল। মোট ৩৫০ জন মানুষের পাশে দাঁড়ালো খড়দহ সংস্কৃতি মঞ্চ।

এই অনুষ্ঠানে এদিন উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক । তিনি বলেন, “আমাদের সরকার উন্নয়ন নিয়ে কখনো রাজনীতি করে না । গরীব মানুষের জন্য রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী যে প্রকল্পগুলো চালু করেছে, তা দেশের কোন মুখ্যমন্ত্রী করতে পারবে না । আমরা মানুষের প্রয়োজনে সিপিএম, কংগ্রেস, বিজেপি দেখি না । রাজনীতির রং না দেখে তাদের পাশে দাঁড়িয়ে তাদের সহযোগিতা করি ।”

এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত দমদম লোকসভা কেন্দ্রের সাংসদ অধ্যাপক সৌগত রায় সি এ এ এবং এন আর সি নিয়ে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে সমালোচনায় সরব হন । তিনি বলেন, “আমরা প্রত্যেকে দেশের নাগরিক । নতুন করে কাউকে নাগরিকত্বের প্রমাণ দেব না ।” খড়দহে প্রতিবন্ধীদের সরঞ্জাম প্রদান অনুষ্ঠানে রাজ্যের অর্থমন্ত্রী অমিত মিত্র, খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক, দমদম লোকসভা কেন্দ্রের সাংসদ সৌগত রায়, ব্যারাকপুরের মহকুমা শাসক আব্দুল কালাম আজাদ ইসলাম, ব্যারাকপুর ২ নম্বর ব্লকের বিডিও অনামিকা বেরা সহ বিশিষ্ট অতিথিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। এদিন রাজ্যের অর্থমন্ত্রী, খাদ্যমন্ত্রী এবং সংসদ প্রতিবন্ধী মানুষ জনের হাতে তুলে দিলেন তাদের প্রয়োজনীয় সরঞ্জাম।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ