কলকাতা: সম্প্রতি বেশ কিছু পণ্য পরিষেবায় জিএসটি কমানোর কথা বলেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী৷ আর তা শুনে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন রাজ্যের অর্থমন্ত্রী অমিত মিত্র৷

কারণ তাঁর যুক্তি জিএসটি পরিষদকে এড়িয়ে এভাবে এক তরফা ভাবে কর কমানোর কথা বলা উচিত নয় প্রধানমন্ত্রীর৷ আর সেটা করে মোদী রীতি ভেঙেছেন বলেই অভিযোগ এ রাজ্যের অর্থমন্ত্রীর৷

এভাবে জিএসটি বৈঠকের আগেই কর কমানো কথা প্রধানমন্ত্রীর বলরা অর্থ হল পরিষদের অধিকারকে খর্ব করা বলে অভিমত অমিত মিত্রের।তাছাড়া প্রশ্ন তুলেছেন- সংসদের অধিবেশন চলাকালীন কেমন করে প্রধানমন্ত্রী এরকম ঘোষণা করতে পারেন তা নিয়েও?

কর সংস্কারের মধ্য দিয়ে গোটা দেশে এক পরোক্ষ কর ব্যবস্থা চালু হয়েছে৷ তবে সময় মতো জিএসটি পরিষদ-এ তা পর্যালোচনা করে করের হারের পরিবর্তন করা হয়েছে৷ এই পরিষদের মাথায় রয়েছেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী। তাছাড়া বিভিন্ন রাজ্যের অর্থমন্ত্রীরা হলে পরিষদের সদস্য।এখনও পর্যন্ত এক্ষেত্রে যা পরিবর্তন করা হয়েছে তার সবটাই হয়েছে পরিষদে সর্বসম্মত সিদ্ধান্তের ভিত্তিতে।

এ দফায় পরিষদে প্রস্তাব পেশের আগেই প্রধানমন্ত্রী ঘোষণা করেছেন, বিমান, সিগারেট, অ্যালকোহল, এসইউভি ছাড়া ২৮ শতাংশের গণ্ডিতে থাকা বাকি সব পণ্যের জিএসটি কমিয়ে ১৮ শতাংশ করা হবে। তা একেবারেই রীতি বিরুদ্ধে বলেই মনে করছে নবান্ন।