রাজকোট: ৩৭০ ধারা জম্মু-কাশ্মীর থেকে বিলোপের পর থেকে ভারত-পাকিস্তানের সম্পর্ক তলানিতে গিয়ে ঠেকেছে৷ এমনকি দুই দেশের মধ্যে বাণিজ্যিক সম্পর্কও ছিন্ন হয়ে গিয়েছে৷ কিন্তু দুই দেশের মানুষের মধ্যে এখনও গড়ে উঠছে ভালোবাসার সম্পর্ক, পরিণয়ের সম্পর্ক৷ আর এমনই নিদর্শন উঠে এল সংবাদ মাধ্যমে৷

দুই পাকিস্তানি পাত্র ভারতে এসে বিয়েটা সেরে ফেললেন ভারতীয় পাত্রীর সঙ্গে৷ কিন্তু ভারতেই কেন? উত্তর জেনে অনেকেই অবাক হবেন৷

পাকিস্তান থেকে গুজরাতের রাজকোটে এসে বিয়ে সেরেছেন দুই পাকিস্তানি৷ তাঁরা জানিয়েছেন, পাকিস্তানে তাদের ওপর এমন চাপ রয়েছে যার ফলে তাঁরা নিজেদের বিয়েতে ব্যান্ড-পার্টি-জম্পেশ আয়োজন কোনও কিছুই নাকি করতে পারেন না৷ কিন্তু বিয়ের মতো একটা আনন্দের কাজ চুপি চুপি সেরে ফেলতে একেবারেই রাজি ছিলেন না তাঁরা৷

পাকিস্তান থেকে আসা দুই পাত্রের মধ্যে একজন অনিল মহেশ্বরী জানান, তিনি করাচি শহরে থাকেন৷ এবং সীমান্তের দুদিকে মহেশ্বরী সম্প্রদায়ের মানুষের বাস৷ স্বাধীনতার সময় কিছু মহেশ্বরী পাকিস্তানের অংশে চলে যায়, তারা আর ভারতে ফিরতে পারেনি৷ আবার পাকিস্তান থেকে আসা অনেক মহেশ্বরী ভারতে এসে এখানের নাগরিকত্বও পেয়ে গিয়েছে৷ কিন্তু পাকিস্তানে ধুমধাম করে বিয়ের অনুষ্ঠান করার ছাড় তাঁরা পাননি৷

পাকিস্তান আগত দুজনজম্মু-কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা সরানোর পদক্ষেপকে সমর্থন করেন এবং বলেন এই ধারা বিলোপের প্রয়োজন ছিল৷ প্রসঙ্গত, মহেষ্বরী সম্প্রদায়ের মধ্যে প্রতি বছর গণবিবাহের আয়োজন করা হয়৷ আর পাকিস্তানের ওই দুই ব্যক্তি ধুমধাম করে বিয়েটা সারবেন বলে হাজির হলেন সোজা রাজকোটে৷ আর করে ফেললেন মনের মতো বিয়ে৷