ওয়াশিংটন:  ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরান থেকে তেল কেনার বিষয়ে চিনকে পাকাপাকিভাবে ছাড় দেওয়ার চিন্তা করছে আমেরিকা। প্রাক্তন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার আমলে চিনকে ইরান থেকে তেল আমদানির বিষয়ে যেভাবে ছাড় দেওয়া হয়েছিল সেভাবে ট্রাম্প প্রশাসনও বিষয়টি বিবেচনা করছে। আর তা যদি দেওয়া হয় সেক্ষেত্রে বেশ কিছুটা স্বস্তি পেতে পারে কমিউনিস্ট চিন।

ইরানের ওপর মার্কিন অবৈধ ও একতরফা নিষেধাজ্ঞার কারণে বর্তমানে চিন সহ কোনও দেশই স্বাভাবিক উপায়ে তেল আমদানি করতে পারছে না। ফলে সম্প্রতি মার্কিন নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে ইরান থেকে প্রায় ১০ লাখ ব্যারেল তেলের একটি চালান নিয়েছে চিন। এসব দেশের তেল শোধনাগার ও শিল্প প্রতিষ্ঠানের জন্য ইরানি তেলের প্রচুর চাহিদা রয়েছে। সে কারণে ইরান থেকে তেল আমদানি করা চিন সঃ অনেক দেশের জন্যই অপরিহার্য। এসব দেশের পক্ষ থেকে আমেরিকার ওপর চাপও রয়েছে।

গত সপ্তাহে মার্কিন বিদেশ দফতরের একজন শীর্ষ আধিকারিক বলেছেন, ইরান থেকে যে দেশ তেল আমদানি করবে তাদের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হবে। কিন্তু এরপরই আমেরিকার তিনজন আধিকারিক জানিয়েছেন, ইরান বিষয়ক মার্কিন দূত ব্রায়ান হুক ও তার আলোচক দল ইরান থেকে চিনকে তেল কেনার বিষয়ে ছাড় দেওয়ার কথা আন্তরিকভাবে বিবেচনা করছে।