ওয়াশিংটন:  উহানের ল্যাব থেকেই গোটা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়েছে মারাত্মক করোনা ভাইরাস। এমনটাই মনে করছে গোটা বিশ্ব। যা নিয়ে রীতিমত চাপ বাড়ছে বেজিংয়ের উপর। এই পরিস্থিতিতে ধীরে ধীরে বেজিংয়ের সঙ্গে দূরত্ব বাড়াচ্ছে গোটা বিশ্বের প্রথমসারির একাধিক দেশ। আমেরিকা, ব্রিটেন, ইতালি, জাপান। একের পর এক শক্তিশালী রাষ্ট্র চিনের সঙ্গে দূরত্ব তৈরির ইঙ্গিত দিয়েছে। আর তাতে সামিল হয়েছে ভারতও।

উহান থেকেই বিশ্বে ছড়িয়েছে মারণ করোনা, তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। এই অবস্থায় তাঁর হুঁশিয়ারি, করোনা ভাইরাস নিয়ে চিনের যোগসাজশ এবং মিথ্যাচার প্রমাণিত হলে চিনকে তার খেসারত দিতে হবে। এই পরিস্থিতিতে চাপ বাড়ছে বেজিংয়ের উপর।

শুধু মিস্টার প্রেসিডেন্ট নন, মার্কিন বিদেশসচিব দফায় দফায় হুমকি দিয়ে কখনও বলছেন, উহানের ভাইরোলজি গবেষণাগারে মার্কিন বিজ্ঞানীদের প্রবেশাধিকার দিতে হবে। বিশ্ববাসী সত্যিটা জানতে চায়। আবার তিনি বলেছেন, চিন যতক্ষণ না স্বচ্ছভাবে জানাচ্ছে ঠিক কী হয়েছে, ততক্ষণ চিনের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক রাখা সমস্যা। ফলে প্রবল চাপের মুখে কমিউনিস্ট চিন।

অন্যদিকে, আমেরিকা, ফ্রান্সের পর চিনের দিকে আঙুল তোলা থেকে বাদ গেল না জার্মানিও। এবার অভিযোগ তুললেন জার্মান চান্সেলর অ্যাঞ্জেলা মার্কল। ভাইরাস কোথা থেকে এল, তা নিয়ে যে চিন তথ্য চাপছে, এমনটাই অভিযোগ তাঁর। তিনি বলেন, চিন গোটা বিশ্বকে করোনা ভাইরাস নিয়ে ভুল বোঝাচ্ছে। ভাইরাসের উৎস আর সংক্রমণ নিয়ে আরও বেশি স্বচ্ছ হওয়ার আর্জি জানিয়েছেন চিনের কাছে। তিনি বলেন, ”আমার বিশ্বাস চিন আরও বেশি স্বচ্ছ হবে ভাইরাসের উৎস সম্পর্কে। বিশ্বের প্রত্যেকেরই এই বিষয়টা জানা উচিৎ।’

চিন আর জার্মানিতে এই মুহূর্তে মৃতের সংখ্যা প্রায় সমান, ৪৬৪৮। আক্রান্তের সংখ্যা ৬২০০০।

চান্সেলর মার্কল আরও জানিয়েছেন, ‘জার্মানিতে লকডাউন ধীরে ধীরে শিথিল করা হচ্ছে। ছোট ছোট দোকান খোলার অনুমতি দেওয়া হয়েছে। তবে সোশ্যাল ডিসট্যান্স বজায় রাখতে বলা হয়েছে। তবে স্কুল খোলা হয়নি এখনও।

এর আগে আমেরিকা ছাড়াও একই অভিযোগ তুলেছেন ফরাসি প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল ম্যাকরঁ। সাক্ষাৎকারে ফ্রেঞ্চ প্রেসিডেন্ট বলছেন, অন্যান্য দেশের সঙ্গে চিনের সংখ্যা তুলনা করা ঠিক না। তাঁর কথায়, চিন যেভাবে সংকটকে আজ নিয়ন্ত্রণ করেছে তার আমি সম্মান করি। কিন্তু এতটাও এখনই বলে দেওয়া ঠিক না যে অন্য দেশের থেকে চিন অনেক ভালো করেছে। অনেক কিছুই ঘটে গিয়েছে যা আমরা পরিষ্কার ভাবে জানি না। চিন শীঘ্রই তাদের দেশে করোনা সংক্রমণ কমিয়ে এনেছে। কিন্তু ঠিক কতজন আক্রান্ত হয়েছেন এবং কতজনের মৃত্যু হয়েছে তা নিয়ে বিতর্ক রয়ে গিয়েছে।

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও