অ্যামাজন নিয়ে এসেছে ৪৫ % ছাড়ে অ্যামাজন বেসিক ৫৬৪ এল সাইড বাই সাইড ডোর রেফ্রিজারেটর। অ্যামাজন তাদের এই রেফ্রিজারেটর দাম ৭৪,৯৯৯ টাকা। তবে অ্যামাজন বিশেষ ছাড়ে এই রেফ্রিজারেটর গ্রাহকদের দিচ্ছে মাত্রা ৪১,৩৭৯ টাকায়।

অ্যামাজন বিশেষ অফারে দিচ্ছে তাদের অভিনব ও সুন্দর দেখতে অ্যামাজন বেসিক ৫৬৪ এল সাইড বাই সাইড ডোর রেফ্রিজারেটর টি। অ্যামাজনের এই রেফ্রিজারেটর একাধিক সুযোগ সুবিধা রয়েছে। সাইড বাই সাইড এই ডবল ডোরের এই রেফ্রিজারেটর রয়েছে একাধিক জায়গা।

অ্যামাজনের এই রেফ্রিজারেটর দাম ৭৪,৯৯৯ টাকা। তবে অ্যামাজন এই রেফ্রিজারেটরের উপর রেখেছে ৪৫% বিশেষ ছাড়। এই ই-কমার্স সাইটে এই রেফ্রিজারেটর পাওয়া যাচ্ছে মাত্র ৪১,৩৭৯ টাকায়। ৪৫% ছাড়ের ফলে গ্রাহকরা এই রেফ্রিজারেটর কেনায় সাশ্রয় করছে ৩৩,৬২০ টাকার মতো বিপুল টাকা।

 

অ্যামাজন বেসিক ৫৬৪ এল সাইড বাই সাইড ডোর রেফ্রিজারেটর ফ্রিজে ইএমআই এর সুবিধা রয়েছে গ্রাহকদের। সেক্ষেত্রে গ্রাহকদের ইএমআই দিতে হবে ১৯৪৮ টাকা করে।

অ্যামাজন বেসিক ৫৬৪ এল সাইড বাই সাইড ডোর রেফ্রিজারেটরে ডান ও বাম দিকে দুটি দরজা রয়েছে। রেফ্রিজারেটরের বাম দিকের দরজাটি হলো ফ্রিজার আর ডান দিকের দরজাটি নিয়মিত ফ্রিজ, যেখানে সমস্ত কিছু রাখা যাবে যেতে পারে। এই রেফ্রিজারেটরটি বড়ো আকৃতির হওয়ায় প্রায় ৫ সদস্যের বাড়িতেও সুবিধা হবে। অ্যামাজনের এই রেফ্রিজারেটরে প্রতিটা ভাগে ঠান্ডা হাওয়ার ব্যবস্থা রয়েছে যাতে খবার সব সময় ঠিক থাকে।

 

অ্যামাজন বেসিক ৫৬৪ এল সাইড বাই সাইড ডোর রেফ্রিজারেটরে এলিডি ডিসপ্লে সিস্টেম রয়েছে। এই ডিসপ্লে খুব সহজ পদ্ধতিতে ব্যবহার করা যায়। এছাড়াও রয়েছে কুইক ফ্রিজ অপশন যার ফলে ঠান্ডা জল ও আইস্ক্রিম সহজে হয়ে যায় এবং নরমাল অপশন। এই ফ্রিজে মোড পরিবর্তন করার অপশন রয়েছে। যার ফলে বাইরের তাপমাত্রারর সঙ্গে মিলিয়ে রাখা যায় রিফ্রেজারেটরের তাপমাত্রা।

অ্যামাজন বেসিক ৫৬৪ এল সাইড বাই সাইড ডোর রেফ্রিজারেটরে বাইরে ঠান্ডা জলের ব্যবস্থা রয়েছে। এর ফলে ব্যবহারকারী রিফ্রেজারেটরের দরজা না খোলা সত্ত্বেও মিলবে ঠান্ডা জল। ৫ স্টার মেলা এই রিফ্রেজারেটারের ওয়ারেন্টি রয়েছে ১ বছর এবং কমপ্রেসরের ওয়ারেন্টি রয়েছে ৫ বছরের। এছাড়াও রয়েছে ১০ দিনের রিপপ্লেসমেন্টের সুবিধা।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.