নয়াদিল্লি: দীর্ঘদিন ধরেই খাবার ডেলিভারি করার দিকে ঝুঁকছিল ই কমার্স সংস্থা আমাজন। এবার সেই উদ্যোগ বাস্তবায়নের পথে। পিৎজা কিংবা নুডলস এবার পৌঁছে যাবে আমাজনের বাক্সে।

আসলে ভারতে আমাজন প্রাইম খুব ভালো সাড়া পেয়েছে। ২০১৮-তে আমাজন প্রাইম ব্যবহারকারীর সংখ্যা হয়েছে ১ কোটি। এবার ফুড ডেলিভারির ব্যবস্থা করা হলে গ্রাহকদের আগ্রহ আরও বাড়বে বলেই মনে করা হচ্ছে। এছাড়া শুধু সসদস্য সংখ্যাই বাড়বে না, লেনদেনও বাড়বে এই সংস্থায়।

আমাজনে মুদিখানার পণ্যসামগ্রী ডেলিভারি করার ব্যবস্থা আছে। তবে শুধুমাত্র সেইসব জিনিস বিক্রি করে খুব একটা লাভ হচ্ছে না। তাই এবার খাবার বিক্রি করার উদ্যোগ নিয়েছে আমাজন। এইজন্য ওলা ও উবেরের সঙ্গে কথাও বলেছে আমাজন।

গত মাসেই উবের ইটস এবং ওলার ফুড ডেলিভারি পার্টনার ফুডপান্ডার সঙ্গে কথা হয়েছে আমাজনের। ডোমিনোজের সঙ্গেও আমাজনের কথা হয়েছে বলে সূত্রের খবর।

আসলে বিগ বাস্কেট বা গ্রোফার্সের মত সংস্থা মুদিখানার জিনিসপত্র ডেলিভারি করার ক্ষেত্রে আমাজনের থেকে অনেকটাই এগিয়ে আছে। আন্যদিকে, ফুড ডেলিভারিতেও প্রতিযোগিতা বাড়ছে। ২০২০-তেই আমাজন খাবার ডেলিভারি করা শুরু করবে বলে শোনা যাচ্ছে।