নয়াদিল্লি: দেশের ই কমার্স ব্যবসায় অন্যতম জনপ্রিয় আমাজন। আর এবার থেকে গ্রাহকদের জন্য আমাজন নিয়ে এল এক নয়া সুবিধা। এই সংস্থা পা রাখল ভারতের ফার্মেসি মার্কেটেও। অর্থাৎ এবার থেকে আমাজনে পাওয়া যাবে ওষুধও। যা যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ একটি পদক্ষেপ বলে মনে করছেন অনেকে। আপাতত এই প্রথম ই কমার্স সাইট বেঙ্গালুরুতে শুরু করল এই পরিষেবা।

অনান্য একাধিক শহরে এই পরিষেবা দ্রুত শুরু করার পরিকল্পনা তাদের তরফে নেওয়া হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। এই নয়া পদক্ষেপের ফলে এবার থেকে হেলথ কেয়ার পরিষেবাতেও পা রাখল আমাজন। দেশের মধ্যে ই কমার্স দুনিয়াতে আমাজনের এই মুহূর্তে কড়া প্রতিদ্বন্দ্বী ফ্লিপকার্ট। আর এই ফ্লিপকার্টকে টেক্কা দেওয়ার জন্যই তাদের তরফে নিয়ে আসা হয়েছে এই পরিষেবা

এই মুহূর্তে করোনা পরিস্থিতির জেরে একান্ত প্রয়োজন ছাড়া বাইরে বেরোতে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করছেন না কেউই। উপরন্তু নিরাপত্তার বিষয় নিয়েও আতঙ্কিত রয়েছেন সবাই। তাই সেই কথা মাথায় রেখে এই সুবিধা আনা হয়েছে সংস্থার তরফে। সাধারণের কথা ভেবেই তাদের তরফে গ্রহন করা হয়েছে এই পদক্ষেপ। তবে আমাজনের ফুড ডেলিভারি পরিষেবা চালু হওয়ার পরেই জানা গিয়েছিল এবার তারা পা রাখতে চলেছে ফার্মেসি দুনিয়াতে। মনে কড়া হচ্ছে সাধারণের কাছে দ্রুত জনপ্রিয় হবে এই পরিষেবা।

আমাজনের তরফে জানানো হয়েছে সাধারণের কথা ভেবেই তাদের তরফে নেওয়া হয়েছে এই পদক্ষেপ। আপাতত তারা এই পরিষেবা চালু করেছেন বেঙ্গালুরুতে। এর ফলে প্রেসক্রিপশনের ভিত্তিতে গ্রাহকেরা ওষুধ কিনতে পারবেন আমাজন থেকে। যা এই মুহূর্তে অতীব গুরুত্বপূর্ণ। করোনা পরিস্থিতির মধ্যে যেখানে এই মুহূর্তে সকলে খুব আতঙ্কিত সেখানে এই পরিষেবা নিয়ে আসাতে সাধারন মানুষের সুবিধা হবে তা বলাই যায়।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।