কলকাতা: সিএএ বিরোধিতায় বিজেপি বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলি এক হতে না পারায় উদ্বেগ প্রকাশ করলেন নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ অমর্ত্য সেন। তাঁর মতে, সিএএ-র বিরোধিতায় বিজেপি বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলির ঐক্যবদ্ধ হলে ভালো হত ৷ পাশাপাশি তাঁর বক্তব্য, ঐক্য না-হলেও তো আর হাত গুটিয়ে বসে থাকা যায় না, এক্ষেত্রে বরং প্রতিবাদ আন্দোলন অব্যাহত রাখার কথাই তিনি বলেছেন৷

সোমবার রবীন্দ্রসদনে প্রথম নবনীতা দেবসেন স্মারক বক্তৃতা দিতে এসেছিলেন নোবেলজয়ী এই অর্থনীতিবিদ৷ সভা শেষে তাঁকে দিল্লিতে সনিয়া গান্ধীর ডাকা সভায় বিরোধী ঐক্য না হতে পারার প্রসঙ্গে তাঁর অভিমত জানতে চাওয়া হয়। তখন অর্মত্য জানান, যদি ঐক্য থাকে তবে বিরোধিতা সহজ হয়। তবে ঐক্য না-থাকার জন্য বিরোধিতা অচল হয়ে যাবে এমনটা মনে করার কোনও কারণ নেই। এই প্রসঙ্গে তিনি জানান, ঐক্য হল না বলে বিরোধিতা ছেড়ে দেওয়াটা কোন কাজের কথা নয়৷ এতেও বুদ্ধি ও চিন্তার প্রয়োগ হওয়া প্রয়োজন। যেমন হাতে বন্দুক নেই বলে লড়াই ছেড়ে দেওয়া উচিত হবে না। অমর্ত্যের মতে, যদি মানুষ মনে করে অমানবিক , অসাংবিধানিক কাজ হয়েছে, তা হলে তার প্রতিবাদ তো হবে। এখন যে প্রতিবাদটা হচ্ছে, তারও বড় কারণ রয়েছে। এখন কথা বলার স্বাধীনতা কমল কি না অথবা জানার স্বাধীনতা কমল কি না- এই প্রশ্নগুলি উঠছে৷

প্রসঙ্গত,সোমবার দিল্লিতে, সংসদের অ্যানেক্সে সনিয়া গান্ধীর ডাকা বিরোধী বৈঠকে ২০টি দলকে একত্রিত হতে দেখা গিয়েছে৷ কিন্তু সেখানে তৃণমূল কংগ্রেস, শিবসেনা, ডিএমকে, আম আদমি পার্টি, বসপা এবং সপা মতো ছ’টি বৃহৎ বিরোধী দলেগুলিকে পাওয়া যায়নি। শেষ মেশ এই দলগুলি না যাওয়ায় কংগ্রেসের নেতত্বাধীন বিরোধী জোট কতটা অটুট থাকবে তা নিয়ে নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে ৷ প্রধান দলগুলির অনুপস্থিতিই বুঝিয়ে দিচ্ছে বিরোধীদের ঐক্যের প্রকৃত চিত্র বলে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রবিশঙ্কর প্রসাদ কটাক্ষ করেছেন।