চন্ডীগড়: দুই পরিবারের মধ্যে সম্পর্কের সেতু ক্রিকেট। পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান ও পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর সিং। ক্রিকেট দুই পরিবারের মধ্যে বন্ধুত্বের অনুঘটক হিসেবে কাজ করলেও তা অজানাই থেকে গিয়েছিল পাক প্রধানমন্ত্রীর। অবশেষে করতারপুর করিডোর মিলিয়ে দিল বর্তমান দুই রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বকে।

গুরু নানকের ৫৫০তম জন্মবার্ষিকীতে রবিবার করতারপুর করিডোর উদ্বোধনে পাঁচ মিনিটের বাস জার্নিতে ক্রিকেটীয় আলোচনায় মেতে ওঠেন অমরিন্দর-ইমরান। সেখানেই ইমরানকে পঞ্জাব মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ১৯৩৪-৩৫ ইমরানের কাকা জাহাঙ্গির খান তাঁর বাবার অধিনায়কত্বে পাতিয়ালা ও ভারতের হয়ে ক্রিকেট খেলেছিলেন। ওই একই দলে ছিলেন মহম্মদ নিসার, লালা অমরনাথ, ফাস্ট বোলার অমর সিং। ছিলেন দুই ব্যাটসম্যান ওয়াজির আলি ও আমির আলিও। এই সাতজন ক্রিকেটার তাঁর বাবা যদবিন্দর সিং’য়ের অধিনায়কত্বে পাতিয়ালার পাশাপাশি ভারতীয় দলের সদস্য ছিলেন, জানান পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী।

মহারাজা যদবিন্দর সিং ছিলেন পূর্বতন পাতিয়ালা হাউসের শাসক। স্বাভাবিকভাবেই ছোট্ট বাস জার্নির এই ক্রিকেটীয় অভিজ্ঞতায় আপ্লুত ইমরান খান। পরে অমরিন্দর সিং’য়ের কার্যালয়ে এক বিবৃতিতে তিনি জানান, ‘অমরিন্দরের মুখে এই ক্রিকেটীয় অভিজ্ঞতা তিনি দারুণ উপভোগ করেছেন।’

ভারত থেকে ৫৫০ জন পুণ্যার্থীর মধ্যে প্রথম পুণ্যার্থী হিসেবে পঞ্জাব মুখ্যমন্ত্রীই রবিবার করতারপুর করিডোরে প্রবেশ করেন। পাক মুলুকে তাঁকে স্বাগত জানান পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান ও বিদেশমন্ত্রী। পরবর্তীতে ক্যাপ্টেন অমরিন্দর জানান, ‘করতারপুর করিডোরের এই জার্ণি একটা স্বপ্ন লালন-পালনের মতো। আশা রাখি আগামিদিনে এই করিডোর দুই দেশের মধ্যে সম্পর্ক আরও সুদৃঢ় করবে- যা ক্রিকেটের মতোই শক্তিশালী হবে।’

প্রসঙ্গত, ভারত-পাক সীমান্তে তৈরি এই করতারপুর করিডোরটি ভারতের পঞ্জাবের গুরুদাসপুর জেলা থেকে মাত্র চার কিলোমিটার দূরে অবস্থিত। এবং এটি ভারত পাকিস্তানের আন্তর্জাতিক সীমান্তের পাক নরয়াল জেলার অন্তর্গত। জানা গিয়েছে, মৃত্যুর আগে প্রায় আঠারো বছর সময় পর্যন্ত এখানে কাটিয়েছিলেন গুরুনানক।

শনিবারের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ভারত সরকারের পক্ষ থেকে রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব হিসেবে এই করিডোর উদ্বোধনে উপস্থিত ছিলেন ভারতের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং, পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর সিং, অভিনেতা তথা রাজনীতিবিদ সানি দেওল, কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হরদীপ পুরি এবং হরসিমরত কউর বাদল। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন তারকা ক্রিকেটার তথা কংগ্রেস নেতা নভজ্যোত সিং সিধু।