হাওড়া: এনআরএস কান্ডে মুখ্যমন্ত্রীর পদত্যাগ দাবি করে জেলাশাসকের অফিসের সামনে বিক্ষোভ দেখাতে এসে হাওড়া পুরসভায় ঢুকে বিজেপি তান্ডব চালাল বলে জানা গিয়েছে৷ বৃহস্পতিবার বিকেলে উত্তপ্ত হয়ে পড়ে এলাকায়৷

জানা যায়, বৃহস্পতিবার বিকাল ৪.৩০ মিনিট নাগাদ হাওড়া ময়দান ফ্লাইওভার থেকে মিছিল করে ডিএম অফিসের দিকে আসার সময় আচমকাই কিছু বিজেপি যুব মোর্চার কর্মী সমর্থক ঝান্ডা হাতে শ্লোগান দিতে দিতে জোর করে পুরসভার গেট দিয়ে ভিতরে ঢুকে পড়ে। এরপর ভিতরে থাকা বিশাল হোর্ডিং তারা মাটিতে ফেলে দেয়৷ উপস্থিত হয় পুলিশবাহিনী৷ পুলিশ এদের পিছনে ধাওয়া করে এসে পুরসভার গেটের বাইরে বের করে দেয়। এরপর বিজেপি কর্মীরা ডিএম অফিসের সামনে রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখায়। পরে তারা মুখ্যমন্ত্রীর কুশপুতুল পোড়ায়।

জেলাশাসকের অফিসের সামনেও বিজেপির কয়েকশ সমর্থক রাস্তায় বসে মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে শ্লোগান দিতে থাকে। এই বিক্ষোভ কর্মসুচী প্রসঙ্গে হাওড়া জেলা বিজেপি সদরের সভপতি সুরজিৎ সাহা ‘বলেন, এনআরএস কান্ডে মুখ্যমন্ত্রীর ভূমিকা নক্কারজনক। যারা ডাক্তারদের মারধর করল তাদের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির কোনও ব্যবস্থা না করে তিনি ডাক্তারদের হুমকি দিচ্ছেন। এই পরিস্থিতিতে ডাক্তাররা গণইস্তফা দিলে চিকিৎসা ক্ষেত্রে ভয়ঙ্কর পরিস্থিতি হবে।’

এদিন হাওড়া পুরনিগম চত্বরে দলীয় কর্মীদের বিক্ষোভ এবং সেখানে তাণ্ডব চালানো প্রসঙ্গে সুরজিৎবাবু বলেন, পুরনিগমে সঠিক কাজ হচ্ছেনা। এখানে কন্টাক্টররা টাকা না পেয়ে কাজ বন্ধ করে দিয়েছে। এছাড়াও ৪১৯ জনকে নিয়োগ করার পর তাঁদের বেতন না দেওয়া, পুর স্বাস্থ্য কর্মীদের কাজের দিন কমিয়ে দেওয়া প্রভৃতি দুর্নীতির প্রতিবাদে এদিন পুরনিগমে বিক্ষোভ দেখান কর্মীরা।’ এদিনের বিক্ষোভ মিছিলের কারনে বেশ কিছুক্ষণ বঙ্কিম সেতুর হাওড়াগামী লেনে যানবাহন অবরুদ্ধ হয়ে পড়ে বলে জানা যায়৷