প্রতীকী ছবি

স্টাফ রিপোর্টার, মালদহ: মহিলা তৃণমূল কর্মীকে মারধর করে খুনের চেষ্টা ও শ্লীলতাহানির অভিযোগ উঠল বিজেপির গ্রাম পঞ্চায়েতের সদস্যের বিরুদ্ধে৷ ঘটনাটি ঘটেছে মালদহের বামনগোলা থানার চাঁদপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের খুটাদহ এলাকার নন্দিনাদহ গ্রামে৷ আহত ওই মহিলা তৃণমূল কর্মীর নাম অন্নপূর্ণা সরকার গাইন৷ তিনি মালদহ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। ঘটনার তদন্তে নেমেছে বামনগোলা থানার পুলিশ।

অন্নপূর্ণা দেবীর স্বামী সাগর গাইন জানান, বছর দেড়েক আগে ওই এলাকার বিজেপি সমর্থক সুভাষ দত্তের বিরুদ্ধে অন্নপূর্ণা বামনগোলা থানায় শ্লীলতাহানির অভিযোগ জানায়। এই বছর ওই এলাকার ১১ নম্বর সংসদ থেকে গ্রাম পঞ্চায়েতের জয়ী হয়েছেন সুভাষ দত্ত। তাঁর অভিযোগ, শনিবার সুভাষ দত্ত তার দলবল নিয়ে অন্নপূর্ণার বাড়িতে চড়াও হয়৷ তাঁকে অভিযোগ প্রত্যাহার করার জন্য হুমকি দেয়।

পড়ুন: বিয়ের আগে বেঁকে বসল পাত্র, আত্মঘাতী যুবতী

অন্নপূর্ণা বামনগোলা থানায় পালটা অভিযোগ জানায়। অভিযোগ পেয়ে ঘটনা তদন্ত করতে পুলিশ গ্রামে যায়। অভিযোগ, পুলিশ গ্রাম থেকে চলে গেলেই সুভাষ দত্ত দলবল নিয়ে ফের অন্নপূর্ণার বাড়িতে চড়াও হয়৷ তাঁকে বেধড়ক মারধর করে ও শ্লীলতাহানি করে।

গ্রামবাসীরা কোনওরকমে অন্নপূর্ণাকে উদ্ধার করে প্রথমে স্থানীয় স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে যায়। তাঁর আঘাত গুরুতর থাকায় তাঁকে মালদহ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। ঘটনার তদন্তে নেমেছে বামন গোলা থানার পুলিশ। গোটা ঘটনা নিয়ে এখনও পর্যন্ত বিজেপির কোনো প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।