কলকাতা: ভারতের অর্থনীতির অবস্থা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বৃহস্পতিবার, কলকাতায় ইনফোকমের অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়ে এই কথা বলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী। ভারতের অর্থনীতি নিয়ে উদ্বেগপ্রকাশের পাশাপাশি এই বিষয়ে দেশের নাগরিকরা ভয় পাচ্ছেন বলেও মন্তব্য করেন তিনি। সারা দেশ ‘ভুখা’ বা ক্ষুধার্ত বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

শিল্প-বাণিজ্যের কথা প্রসঙ্গে তিনি জানান, বড় শিল্প থেকে ছোট শিল্প, ব্যবসা, ব্যাংক, আইটি দফতর প্রতিটি ক্ষেত্রেই এই মন্দার প্রভাব পড়েছে। এই মন্দার প্রভাব প্রসঙ্গে তিনি টেনে আনেন পেঁয়াজের লাগামছাড়া দামের প্রসঙ্গ।

এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়ে কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে তোপ দাগেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী। এই প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘ব্যাংকগুলোকে দেখুন, যেখানে আমরা বিশ্বাস করে টাকা রাখি সেখানেও কেন্দ্র নির্দেশ দিয়ে দিল আপনি এক লক্ষের বেশি টাকা তুলতে পারবেন না। সবাই ভয়ে রয়েছে, কেউ আগামীদিনের কথা কেউ ভাবতে চাইছে না। আমরা যদি জিডিপির দিকে তাকাই সেখানেও এক ভয়ঙ্কর পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে।’

কেন্দ্রের মোদী সরকারকে এক হাত নেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ‘আমি যখন রেলমন্ত্রী ছিলাম, আমি রেলের ভাড়া বাড়াতে চাইনি। তাই জন্যে অনেকেই আমাকে সমালোচনা করত। কিন্তু, আজকে দেখুন রেল, এয়ার ইন্ডিয়া সব কিছু বিক্রি করতে চাইছে। আমি খুশি যে আমাদের রাজ্যে বেকার সমস্যা কিছুটা হলেও কমানো গিয়েছে।’

অন্যদিকে এ দিন সকালেই বেশ কিছুটা অবাক করে রিজার্ভ ব্যাংকের মনিটারি পলিসি কমিটির বৈঠকে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় রেপো রেট ৫.১৫ শতাংশেই অপরিবর্তিত রাখা হবে৷ তবে জিডিপি বৃদ্ধির হার ২০১৯-২০ সালের ৬.১ শতাংশ থেকে কমিয়ে ৫ শতাংশ করা হয়েছে৷ এদিকে গ্রাহক মূল্য সূচকে মুদ্রাস্ফীতি ধরা হয়েছে ২০১৯-২০ অর্থবর্ষের দ্বিতীয় অর্ধে বেড়ে হবে ৪.৭-৫.১ শতাংশ এবং ২০২০-২১ অর্থবর্ষের প্রথম অর্ধে থাকবে ৩.৮-৪.০ শতাংশ৷

এই কমিটির ছয় সদস্যেই এদিন একমত হন রেপো রেট অপরিবর্তিত রাখার ব্যাপারে৷ তবে কয়েকদিন আগেই ব্লুমবার্গ নিউজের করা ৩৪ জন অর্থনীতিবিদের নিয়ে সমীক্ষায় পূর্বাভাষ দেওয়া হয়েছিল রেপো রেট কমার৷ বেশির ভাগই আশা করেছিলেন ০.২৫ শতাংশ কমবে বাকীরা অবশ্য ভেবেছিলেন ১৫ থেকে ৫০ বেসিস পয়েন্ট কমানো হবে ৷ এদিকে অফ আমেরিকা মেরিলিঞ্চও একই ভেবেছিল যে এ দেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংক ডিসেম্বর মাসে রেপো রেট ২৫ বেসিস পয়েন্ট কমাবে৷ কিন্তু সব জল্পনার অবসান ঘটিয়ে রেপো রেট অপরিবর্তিত রাখল রিজার্ভ ব্যাংক।