সিমলা: দেশের অনেক রাজ্যেই করোনা ভাইরাসের জেরে অবস্থা খারাপ হতে শুরু করেছে। এরই মধ্যে সামনে এসেছে হিমাচল প্রদেশের এমন এক গ্রামের কথা যেখানে এক ব্যক্তি ছাড়া সকলেই আক্রান্ত হয়েছেন করোনায়। এমনকি ওই ব্যক্তির পরিবারের সকলেও করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।

হিমাচল প্রদেশের লাহুল-স্পিতি জেলার এই গ্রামের নাম থোরং। এই গ্রামে ১ জন ছাড়া বাকি ৪২ জনই করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। যে ব্যক্তি করোনা আক্রান্ত হয়েছেন, তাঁর পরিবারের অন্য ৬ সদস্যও ক্রামিত হয়েছেন।

সোউভাগ্যবান ওই ব্যক্তির নাম ভূষণ ঠাকুর। তাঁর বয়স ৫২ বছর। ‘ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস’-এর রিপোর্ট বলছে, ভূষণ করোনার প্রতিরোধে সমস্ত বিধি মেনে চলত। পাশাপাশি চিকিৎসকেরা জানিয়েছেন, সম্ভবত ভূষণের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা খুব শক্তিশালী। কারণ গ্রামের সমস্ত মানুষের করোনা পজিটিভ হওয়া সত্ব্বেও তাঁর রিপোর্ট আসা খুব বিস্ময়কর।

জানা গিয়েছে, ওই গ্রামে প্রথমে পাঁচ জন করোনা পজিটিভ হন। এর পর বাকি লোকেরা নিজেরাই পরীক্ষা করান এবং তাঁদের করোনা রিপোর্ট পজিটিভ আসে। থোরং গ্রামে ৪২ জনের মধ্যে ৪১ জন ইতিবাচক। যদিও এই গ্রামে ১০০ এর বেশি লোক বাস করে, কিন্তু বর্তমানে তুষারপাতের কারণে অনেকে কুল্লু চলে গিয়েছে।

রিপোর্ট জানাচ্ছে, ভূষণ ঠাকুর বাড়ির একটি পৃথক ঘরে থাকছেন। নিজেই খাবার বানান। চার দিন আগে তিনিও পরিবারের সঙ্গে পরীক্ষা দেন। তবে তাঁর রিপোর্ট নেগেটিভ। ভূষণ বলেন, তিনি প্রথম থেকেই নিয়মিত মাস্ক পরেন ও হাত স্যানিটাইজ করেন।

জেলবন্দি তথাকথিত অপরাধীদের আলোর জগতে ফিরিয়ে এনে নজির স্থাপন করেছেন। মুখোমুখি নৃত্যশিল্পী অলোকানন্দা রায়।