রায়পুর: লোকসভা ভোটের পরেই দেশে থেকে হঠানো হবে সকল অনুপ্রবেশকারীদের। প্রকাশ্য জনসভায় সাফ জানিয়ে দিলেন ভারতীয় জনতা পার্টির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ।

আরও পড়ুন- কয়েক মাসের মধ্যেই মুখোশ খুলে গেল পাক প্রধানমন্ত্রীর: ভারত

শুক্রবার দলীয় জনসভায় ছত্তিসগড়ে হাজির ছিলেন অমিত শাহ। মাস খানেক পরেই ওই রাজ্যে অনুষ্ঠিত হবে বিধানসভা নির্বাচন। সেই প্রচারে গিয়েই নাগরিক পঞ্জি এবং অনুপ্রবেশকারীদের নিয়ে মুখ খোলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি।

আরও পড়ুন- অম্বানির সঙ্গে চুক্তির জন্য প্রস্তাব দিয়েছিল ভারতই: ফরাসি প্রেসিডেন্ট

২০১৯ সালে লোকসভা নির্বাচনের পরে বিজেপি ক্ষমতায় আসলে অনুপ্রবেশকারীদের কোনও ছাড় দেওয়া হবে না বলে জানিয়েছেন অমিত শাহ। তিনি বলেছেন, “২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনের পরে ভারতে কোনও অনুপ্রবেশকারী থাকবে না। বিজেপি অনুপ্রবেশকারীদের সঙ্গে কোনও সমঝোতা করবে না।”

আরও পড়ুন- ছাত্র মৃত্যুর প্রতিবাদে বনধ ঘিরে রাম-বাম সংগঠনের তরজা

 

আরও পড়ুন- গোধরা কাণ্ডে নিষ্ক্রিয় ছিলেন মোদী! পাঠ্যবইয়ের তথ্যে তোলপাড়

অসমের নাগরিক পঞ্জির চূড়ান্ত খসড়ায় বাদ গিয়েছে ৪০ লক্ষ মানুষের নাম। এই নিয়ে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে সরব হয়েছে বিরোধী শিবির। সকলেই মানবাধিকারের প্রশ্ন তুলেছে। এই বিষয়ে অমিত শাহ বলেছেন, “অনুপ্রবেশকারীরা ভারতে এসে হিংসা ছড়ায়। আমি রাহুল গান্ধী এবং তাঁর সহযোগীদের কাছে আমার প্রশ্ন তাঁরা কী দেশের শিশুদের মানবাধিকার দেখতে পায় না?” একই সঙ্গে বিরোধীদের উদ্দেশ্যে তিনি আরও বলেছেন, “নিজের দেশের মানুষ নাকি অনুপ্রবেশকারী আপনারা কাদের পক্ষে?”