নয়াদিল্লি : ‘all india institute of speech and hearing mysore’ কর্মী নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে। দেশ জুড়ে স্বাস্থ্য পরিষেবার সঙ্গে যুক্ত মানুষদের চাহিদা ক্রমেই বাড়ছে। আর সেই কারণেই সাধারণ মানশের ক্তহা ভেবে এই কর্মী নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে। এর ফলে মনে করা হচ্ছে সুবিধা হবে সাধারণ মানুষের। প্রার্থীদের দ্রুত আবেদন করতে জানানো হয়েছে।

আরও পড়ুন : পদ্ম-ঘাসফুল দ্বৈরথের মাঝেই আজ প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করতে পারে বামেরাও

নার্স , সিকিউরিটি অফিসার সহ বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ পদে কর্মী নিয়োগের জন্য এই বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে। প্রার্থীদের ৩০ মার্চের মধ্যে আবেদন করতে হবে। জনান হয়েছে ৭ টি স্টাফ নার্স , accountant , assiatnt audit officer , security অফিসার সহ বেশ কিছু পদে কর্মী নিয়োগের জন্য বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে। প্রার্থীদের ৩০ মার্চের ২০২১ সালের মধ্যে আবেদন করতে জানানো হয়েছে। ইতিমধ্যে আবেদন প্রক্রিয়া শুরু হয়ে গিয়েছে ।

আরও পড়ুন : বিশ্বের সেরা ৫০ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে স্থান আইআইটি খড়গপুরের

স্টাফ নার্স পদে কর্মী নিয়োগের জন্য রয়েছে ৪ টি শূন্য পদ। accountant পদের জন্য রয়েছে মাত্র ১ টি শূন্য পদ। assiatnt audit officer পদের ক্ষেত্রে রয়েছে ১ টি শূন্য পদ। সিকিউরিটি অফিসার পদের ক্ষেত্রে রয়েছে আরও ১ টি শূন্য পদ। নার্স পদের ক্ষেত্রে প্রার্থীদের নার্সিং নিয়ে ‘bsc’ করতে হবে। অথবা ডিপ্লোমা করতে হবে ‘gnm’ নিয়ে। প্রার্থীদের বয়স ৩৫ বছরের মধ্যে হতে হবে। accountant পদের ক্ষেত্রে প্রার্থীদের বানিজ্য নিয়ে স্নাতক হতে হবে। প্রার্থীদের বয়স ৩০ বছরের মধ্যে হতে হবে।

আরও পড়ুন : উপকূলে ভয়ঙ্কর ভূমিকম্প, ১০ ফুট জলোচ্ছ্বাসে সুনামির আশঙ্কা

অন্যদিকে assiatnt audit অফিসার ক্ষেত্রে প্রার্থীদের স্নাতক হতে হবে। ৩ বছরের accountas and audit এর কাজে অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। প্রার্থীদের বয়স ৩০ বছরের মধ্যে হতে হবে। সিকিউরিটি অফিসারের ক্ষেত্রে প্রারথীদের ৫ বছরের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। বয়স হতে হবে ৩০ এর মধ্যে। প্রার্থীদের আবেদন পত্র ‘aii india institute of speech and hearing’ , hearingmanasagangotrhi mysyry karnataka 570006′ এই ঠিকানাতে পাঠাতে হবে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।