ওয়াশিংটন: জইশ ই মহম্মদ প্রধান মাসুদ আজহারকে নিয়ে ফের চাপে পাকিস্তান৷ বলা যেতে পারে, রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠকে প্রায় একঘরে ইমরান খান সরকার৷ এদিন কড়া ভাষায় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র জানিয়েছে মাসুদ আজহারকে বিশ্ব সন্ত্রাসবাদী ঘোষণা না করার সিদ্ধান্ত বিশ্বশান্তির পরিপন্থী৷

এরপরেই বেশ কিছুটা চাপে পড়ে যায় পাকিস্তানের তথাকথিত বন্ধু রাষ্ট্র চিন৷ ফলে বুধবারই মাসুদকে গ্লোবাল টেররিস্ট ঘোষণা করা হতে পারে বলে সূত্রের খবর৷ এই ঘোষণার দিকেই তাকিয়ে রয়েছে ভারত৷ মঙ্গলবার নিজের সওয়ালে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র বলে মাসুদের বিরুদ্ধে একাধিক নাশকতা সংগঠিত করার প্রমাণ রয়েছে৷ তার বিরুদ্ধে যদি এখনও কোনও পদক্ষেপ না নেওয়া হয়, তবে তা বিশ্বশান্তির স্থিতিশীলতার পক্ষে ক্ষতিকর হতে পারে৷

আরও পড়ুন : ভারতের তেজসকে টেক্কা দিতে JF-17 ফাইটার জেট চিন-পাকিস্তানের

এর আগেও মাসুদ আজহারকে গ্লোবাল টেররিস্ট ঘোষণা করার জন্য প্রস্তাব রেখেছিল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র৷ পাশে দাঁড়িয়েছিল ফ্রান্স ও ব্রিটেন৷ কিন্তু সব চেষ্টাই জলে গিয়েছে৷ চিনের ভেটো প্রয়োগের ক্ষমতা সেই পরিকল্পনা ও প্রস্তাব বাস্তবায়িত করতে দেয়নি৷

২০০১ সালের সংসদ হামলা থেকে শুরু করে ২০১৯ পাঠানকোট হামলা৷ ভারত বরাবর মাসুদ আজহারকে গ্লোবাল টেররিস্ট ঘোষণার পক্ষে দাবি জানিয়ে এসেছে৷ তবে বার বারই চিনের বাধায় তা সম্পূর্ণ হয়নি৷ মঙ্গলবার এই দাবি আরও জোরাল হয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সওয়ালে৷ ফলে এবার মাসুদ আজহারকে গ্লোবাল টেররিস্ট ঘোষণা করা সময়ের অপেক্ষা বলেই মনে করা হচ্ছে৷

আরও পড়ুন : মাসুদকে ‘জি’ বলে সম্বোধন করায় রাহুলের নামে মামলা

যদি মাসুদকে বিশ্ব সন্ত্রাসবাদী ঘোষণা করা হয়, তবে তা আন্তর্জাতিক কূটনৈতিক মহলে ভারতের বড়সড় সাফল্য হিসেবেই ধরা হবে৷ তবে আজ চিন কি খেলা দেখায়, সেটা দেখার৷