আলিগড়: চুম্বনেই সব শেষ৷ কেউ হয়তো ভাবতেও পারেননি একটা চুম্বনের জন্য ভেঙে যাবে বিয়েটাই৷ কিন্তু কীভাবে? বিয়ের দিন মালাবদলের ঠিক আগে আচমকাই হবু বরকে জড়িয়ে ধরে চুম্বন করে বসেন তাঁর বউদি৷ এমনকী তাঁকে টানতে টানতে নিয়ে যান ডান্স ফ্লোরে৷ সেখানে বউদির সঙ্গে তালে তাল মিলিয়ে নাচে মত্ত হয়ে ওঠেন দেওরও৷ এরপরই যত বিপত্তি৷

এবার একটু ফ্ল্যাশব্যাকে ফিরে যাওয়া যাক৷ বিয়ের মধ্যমণি পাত্রপাত্রীর দেখা হয়েছিল সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটে৷ সেখানেই প্রেমে পড়েন তাঁরা৷ তারপর বাড়ির অনুমতিতে ছাঁদনাতলায় সাত পাকে বাঁধা পড়ার সিদ্ধান্ত নেন পাত্রপাত্রী৷ কিন্তু বিয়ের মঞ্চে বদলে গেল চিত্র৷

বউদি ও হবু বর দেওরের উদ্দাম নাচ দেখে রাগে ফেটে পড়েন মেয়ের বাড়ির লোকেরা৷ শুরু হয় হাতাহাতি৷ ঝামেলার মিটমাট না-হওয়ায় অবশেষে বিয়েটাই ভেস্তে যায়৷ কিন্তু কাহিনীর এখানেই শেষ নয়৷ একপ্রস্থ হাতাহাতির পর বরযাত্রীরা তো বাড়ি ফিরে যান৷কিন্তু কন্যাপক্ষ একটি ঘরে আটকে রাখেন বরকে৷পরের দিন বাড়ির লোকজন এসে উদ্ধার করে তাঁকে৷