ইসলামাবাদ: পাকিস্তানের লাহোরের আকাশে হঠাৎই দেখা গেল একটি কালো রিং-এর বস্তু। যা ঘিরে রীতিমতো চাঞ্চল্য ছড়াল বাসিন্দাদের মধ্যে। বুধবার আকাশে ওই কালো চাকতি দেখার পরেই সকলের মনেই ফের উসকে উঠেছে এলিয়ন ও ইউএফও-র জল্পনা।

বিভিন্ন টুইটার ইউজারদের বক্তব্য, আকাশে কালো চাকতি দেখার পর এবং এলিয়নের জল্পনা শুরু হতেই তীব্র আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে স্থানীয় বাসিন্দাদের মধ্যে। ওই কালো রিং-এর ভিডিওটি ইতিমধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে গিয়েছে।

বেশ কয়েকজন স্থানীয়দের বক্তব্য অনুসারে, ওই কালো রিংটি ‘অশুভ’। আবার অন্য বেশ কয়েকজন বাসিন্দাদের বক্তব্য ওই রিং-টি লাহোরের আকাশে উড়ে যাওয়ার ফলে তা রীতিমতো আতঙ্কের সৃষ্টি হয়েছে। আকাশে ওই কালো চাকতিটা রীতিমতো ঘুরছিল। যা দেখে অবাক হয়ে যান স্থানীয়রা। কিন্তু সেটি আসলে কী জিনিস, তা বুঝতে পারছেন না কেউই।

উল্লেখ্য, পাকিস্তানে এর আগেও প্রকাশ্যে এসেছিল এই একই ধরণের ঘটনা। একটি সর্বভারতীয় সংবাদ মাধ্যমের দাবি, ২০১৫ সালে পাকিস্তানের কাজাখিস্তানে এই একই ধরণের ঘটনা ঘটেছিল। সে সময় এক স্কুল ছাত্রী আকাশে প্রায় একই ধরনের কালো চাকতি দেখা গিয়েছিল। এরপরে ওই ঘটনার রীতিমতো তদন্তও করা হয়। প্রকাশ্যে আসে একটি গ্রামের চিমনি থেকে ওই কালো ধোঁয়া বেরিয়েছিল।

উল্লেখ্য, কদিন আগেই হেলেন শরমন, যিনি কিনা ব্রিটেনের প্রথম মহাকাশচারী, তিনি অবজারভার সংবাদপত্রকে জানিয়েছিলেন, “এলিয়ান আছে, এই নিয়ে কোনও দ্বিমত নেই।” তিনি বলেন, মহাকাশে অসংখ্য নক্ষত্র রয়েছে এবং যার মধ্যে প্রাণ থাকবেই। তিনি যোগ করেন, “তারা হতে পারে আমার, আপনার মতো কার্বন এবং নাইট্রোজেনের তৈরি। আবার নাও হতে পারে।”

এই হেলেন শরমন ব্রিটেনের প্রথম মহাকাশচারী। তিনি ১৯৯২ সালে ব্রিটেনের প্রথম মহাকাশচারী হিসেবে মহাকাশে যান। তখন তাঁর বয়স ছিল মাত্র ২৭। একটি গুরুত্বপূর্ন মহাকাশ গবেষণা সংক্রান্ত কারণে আটদিন মহাকাশে কাটিয়েছিলেন তিনি। অল্প বয়সী মহাকাশচারীদের মধ্যে তাঁর নাম অন্যতম।