মুম্বই- ভাট পরিবারের প্রত্যেকেই যে গুণী, তা আর নতুন করে বলার কিছু নেই। পূজা ভাট ও আলিয়া ভাট অভিনয় দুনিয়ায় নিজের ছাপ রেখেছেন। আর অন্যদিকে আর এক মেয়ে শাহিন ভাট সম্প্রতি একটি বই লিখেছেন। বইটির নাম আই হ্যাভ নেভার বিন আনহ্যাপি।

সেই বই প্রকাশের অনুষ্ঠানেই কেঁদে ভাসালেন বোন আলিয়া ভাট। বাবা মহেশ ভাটের চোখেও জল দেখা গেল এদিন। শাহিন এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্য়মের কাছে জানিয়েছেন এই বইটি তাঁর জীবনের অবসাদ নিয়ে লেখা। ১২ বছর বয়স থেকে তিনি কী ভাবে অবসাদের শিকার হয়েছে সেসব রয়েছে বইতে।

একটি ভিডিওয় দেখা যাচ্ছে আলিয়া ও শাহিনের মা সোনি রাজদান বই থেকে একটি অংশ পড়ছেন। আর সেই শুনে কেঁদে ভাসাচ্ছেন আলিয়া। বইয়ের এই অংশে রয়েছে, অসুস্থতার জন্য শাহিনকে রোজ কতটা অসুবিধার মধ্য়ে দিয়ে যেতে হয়েছে।

আলিয়া এই ইভেন্টে বলেন, আমার বোন হিসেবে ভয়ঙ্কর লাগে। আমি কখনও ওর জায়গায় নিজেকে সে ভাবে বসিয়ে দেখিনি ওকে বোঝার জন্য। আমি শুধু এটুকুই জানি, ও আমার জীবনের সবচেয়ে মেধাবী মানুষ। যদিও ও নিজে কতটা গুণী ও ভালো সেটা ও বিশ্বাস করে না। কিন্তু সেটায় আমি দুঃখ পাই। আমি খুবই সংবেদনশীল। কিন্তু ওকে যতটা বোঝা উচিত ছিল তা আমি পারিনি। তার জন্য আমার খারাপ লাগে।

শাহিন এও জানিয়েছেন, অবসাদের জন্য জীবনে তিনি একাধিকবার আত্মহত্যাও করতে গিয়েছিলেন। শাহিনের বই প্রকাশ অনুষ্ঠানে উপস্থিথ ছিলেন আলিয়া, মহেশ ভাট সোনি রাজদান ও পূজা ভাট-সহ সকলেই।

পপ্রশ্ন অনেক: নবম পর্ব

Tree-bute: আমফানের তাণ্ডবের পর কলকাতা শহরে শতাধিক গাছ বাঁচাল যারা