ধৃত আল কায়েদা জঙ্গি

কলকাতাঃ  শনিবারই মুর্শিদাবাদ থেকে ছয় আল-কায়দা জঙ্গিকে গ্রেফতার করেছে এনআইএ। এরপর থেকে দফায় দফায় তাঁদের জেরা শুরু করেছে তদন্তকারী আধিকারিকরা। ধৃতদের ম্যারাথন জেরায় ইতিমধ্যে চাঞ্চল্যকর তথ্য উঠে এসেছে।

শুধু তাই নয়, মুর্শিদাবাদের আবু সুফিয়ানকে জেরা করে মিলল বিস্ফোরক তথ্য। সুফিয়ানের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে বাড়িতে হানা তদন্তকারীদের। বাড়িতে পাওয়া গেল সুড়ঙ্গের হদিশ! সূত্রের খবর, সেখান থেকে তাজা বোমাও উদ্ধার হয়েছে। বাড়ির নীচে এমন সুড়ঙ্গের খোঁজ পেয়ে তাজ্জব তদন্তকারী আধিকারিকরা।

প্রসঙ্গত, বাংলায় আল-কায়েদার বড়সড় চক্রের হদিশ পায় এনআইএ। গোপন সূত্রে হানা দিয়ে ৬ জনকে গ্রেফতার করে কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা। শুধু বাংলা নয়, কেরলেও একাধিক জায়গায় তল্লাশি চালায় জাতীয় নিরাপত্তা সংস্থা এনআইএ। শুধু তাই নয়, গোপন সূত্রে খবর পেয়ে তল্লাশি চালানো হয় দেশের একাধিক জায়গায়।

নির্দিষ্ট তথ্যের ভিত্তিতে কেরল থেকে তিনজনকে ও বাংলা থেকে ৬ জন আল-কায়েদা জঙ্গিকে গ্রেফতার করে তদন্তকারী সংস্থার আধিকারিকরা। সূত্রের খবর, জেরায় জঙ্গি সংগঠনের সঙ্গে যোগাযোগ থাকার কথা স্বীকার করে নিয়েছে ধৃত জঙ্গিরা। শুধু তাই নয়, দেশের মধ্যে বড়সড় হামলা’র ছক ছিল জঙ্গিদের। দফায় দফায় জেরায় এমনটাই জানিয়েছে ধৃত আল-কায়েদা জঙ্গিরা।

এনআইএ সূত্রে খবর, দিল্লি সহ দেশের বিভিন্ন জায়গায় হামলার ছক ছিল জঙ্গিদের। কখনও একসঙ্গে আবার কখনও একসঙ্গে ছয় জঙ্গিকে বসিয়ে দফায় দফায় জেরা করেছে এএনআই। জেরায় আরও কিছু তথ্য পেয়েছে তদন্তকারী আধিকারিকরা।

জানা যায়, মুর্শিদাবাদের রানিনগরের বাসিন্দা আবু সুফিয়ান মোল্লা পালানোর ছক কষছিল। তদন্তকারী সংস্থা তাঁদের যে খোঁজ পেয়ে গিয়েছে সেই ইঙ্গিত পেয়ে যায় সুফিয়ান। আর তা পেতেই পালানোর ছক কষে। যদিও এএনআইয়ের পাতা জালে ধরা পড়ে যায় সুফিয়ান। তাকে জেরা করেই আবু সুফিয়ানের বাড়িতে মিলেছে একটি সুড়ঙ্গের হদিশ।

সুড়ঙ্গ থেকে উদ্ধার বোমা। এনআইএ-র গোয়েন্দাদের অনুমান, ‘বিস্ফোরক, আগ্নেয়াস্ত্র মজুতের জন্যই তৈরি করা হয়েছিল ওই টানেল’। অল্প কিছুদিন আগেই এই সুড়ঙ্গ বানানো হয়েছিল বলে জানা যাচ্ছে।

অন্যদিকে, বেশ কিছু নম্বর উদ্ধার করেছে এনআইএ। এই সমস্ত নম্বরগুলি কাশ্মীরের বলে তদন্তে উঠে এসেছে। সেগুলি বিস্তারিত খোঁজ চালানো হচ্ছে। পাশাপাশি গত কয়েকদিনে ধৃত ছয় জঙ্গি কাদের কাদের সঙ্গে যোগাযোগ করেছে সমস্ত বিস্তারিত খোঁজ নেওয়া হচ্ছে।

পচামড়াজাত পণ্যের ফ্যাশনের দুনিয়ায় উজ্জ্বল তাঁর নাম, মুখোমুখি দশভূজা তাসলিমা মিজি।