নয়াদিল্লি: ২১ জুন একদিকে সংগীত অন্যদিকে যোগ-ব্যায়াম, সারা বছরই এই যা মানুষের মন এবং শরীর ভালো রাখতে পারে আজ সেই দিবস৷ আজ বৃহস্পতিবার, একদিকে ইন্টারন্যাশনাল মিউজিক ডে এবং অন্যদিকে ইন্টারন্যাশনাল যোগা ডে৷ তাই এই স্পেশাল দিন নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়াও রয়েছে মেতে৷ শেয়ার-পোস্টের ছড়াছড়ি৷ আর এই সবদিনে তারকারা যে কিছু না কিছু চমক দেবেন বা অনুপ্রাণিত করবেন তা নতুন করে বলার অপেক্ষা রাখে না৷ যেমন করলেন অক্ষয় কুমার৷

কে না জানে, বলিউডের খিলাড়ি অক্ষয় কুমারের ফিটনেস নিয়ে কারও মনে কোনও সন্দেহ নেই৷ পঞ্চাশোর্দ্ধ এই তারকা আজও যে কোনও কম বয়সী তরুণকে টেক্কা দিতে পারেন অনায়াসেই৷

কিন্তু তাঁর এই শক্তির রহস্য এবং অনুপ্রেরণার পিছনে কে রয়েছেন সেই ছবিই তিনি আজ তুলে ধরলেন সকলের সামনে৷ ট্যুইটারে শেয়ার করলেন তাঁর মায়ের ছবি৷ যেখানে দেখা যাচ্ছে অভিনেতার সত্তরোর্দ্ধ মা যোগাসনে ব্যস্ত৷

এই ছবি শেয়ার করে তিনি ক্যাপশনে লিখেছেন, ‘আমি এই ছবি গর্বের সঙ্গে শেয়ার করছি৷ ৭৫ বছর বয়সে হাঁটুর সার্জারির পরে মা যোগা শুরু করেন, এবং এখন এই যোগাকেই ডেইলি রুটিন করে নিয়েছেন…৷’ অক্ষয়ের এই ছবি পোস্ট করার পরেই লাইক, রিট্যুইট শুরু হয়ে যায়৷ এবং অনেকেই নিজেদের মতামতও শেয়ার করেন ইন্টারন্যাশনাল যোগা ডে-তে৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনাকালে বিনোদন দুনিয়ায় কী পরিবর্তন? জানাচ্ছেন, চলচ্চিত্র সমালোচক রত্নোত্তমা সেনগুপ্ত I