দুবাই: শেষমেশ আশঙ্কাটাই সত্যি হল৷ চাকিংয়ের দায়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে সরিয়ে দেওয়া হল শ্রীলঙ্কার তারকা স্পিনার আকিলা ধনঞ্জয়াকে৷ আক্ষরিক অর্থে সরিয়ে দেওয়া না-হলেও আগামী ১২ মাসের জন্য ধনঞ্জয়ার বোলিংয়ের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে আইসিসি৷ অর্থাৎ আগামী এক বছর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বোলিং করতে পারবেন না তিনি৷ শুধু মাত্র ব্যাটিংয়ের দৌলতে জাতীয় দলে ঢোকা সম্ভব নয় ধনঞ্জয়ার পক্ষে৷ যার অর্থ, আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে কার্যত একবছর নির্বাসনে পাঠানো হল সিংহলি স্পিনারকে৷

আরও পড়ুন: বিশ্বচ্যাম্পিয়নশিপে পদক এনে অলিম্পিকের টিকিট নিশ্চিত করলেন ভিনেশ

গত ১৪-১৮ অগস্ট নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে গল টেস্টে সন্দেহজনক বোলিং অ্যাকশনে অভিযুক্ত হন ধনঞ্জয়া৷ নিয়ম মতো আম্পায়াররা সন্দেহ প্রকাশ করার ১৪ দিনের মধ্যে বোলিং অ্যাকশনের বৈধতার প্রমাণ দিতে হয় সংশ্লিষ্ট ক্রিকেটারকে৷ সেই মতো গত ২৯ অগস্ট চেন্নাইয়ে বোলিং অ্যাকশনের পরীক্ষা দেন তিনি৷ পরীক্ষায় ধনঞ্জয়ার অ্যাকশন অবৈধ প্রমাণিত হওয়ায় তাঁর বোলিংয়েপ উপর প্রতিবন্ধকতা জারি করা হয়৷

আরও পড়ুন: মার্করাম-মাল্ডারের জোড়া শতরানে পালটা লড়াই দক্ষিণ আফ্রিকার

এই নিয়ে দ্বিতীয়বার ধনঞ্জয়ার বোলিং অ্যাকশন অবৈধ প্রমাণিত হয়৷ ২৫ বছর বয়সি ধনঞ্জয়া গত বছর নভেম্বরে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে গল টেস্টেই সন্দেহজনক বোলিং অ্যাকশনে অভিযুক্ত হয়েছিলেন৷ প্রাথমিকভাবে সিংহলি স্পিনারের বোলিংয়ের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছিল আইসিসি’র তরফে৷ অ্যাকশনের ত্রুটি শোধরানোর পর গত ফেব্রুয়ারি মাসে আইসিসি ধনঞ্জয়ার বোলিং করার উপর থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়৷ ২ বছরের মধ্যে দ্বিতীয় বার চাকিংয়ের অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় আগামী ১২ মাসের মধ্যে অ্যাকশন শুধরে বৈধতা প্রমাণের আবেদনও করতে পারবেন না ধনঞ্জয়া৷

আরও পড়ুন: বিশ্বচ্যাম্পিয়নশিপে পদক জয়ী ভিনেশকে অভিনন্দন বিরাটের

শ্রীলঙ্কার হয়ে ৬টি টেস্টে ৩৩টি উইকেট নিয়েছেন ধনঞ্জয়া৷ ৩৬টি ওয়ান ডে ম্যাচে তাঁর উইকেট সংখ্যা ৫১৷ ২২টি আন্তর্জাতিক টি-২০ ম্যাচে শ্রীলঙ্কার হয়ে ২২টি উইকেট নিয়েছেন ডান হাতি স্পিনার৷