নয়াদিল্লিঃ টেলিকম সেক্টরে ইতিমধ্যে নিজের জায়গা পাকা করে ফেলেছে জিও। আনলিমিটেড ফ্রি কল, ইন্টারনেট ব্যবহারের সুবিধা দিয়ে দেশের বিশাল বাজার ধরে ফেলেছে মুকেশ অম্বানির সংস্থা। আর জিও’র ধাক্কায় অবস্থা বেশ কিছুটা টলমল অন্যান্য টেলিকম সংস্থাগুলির। যদিও নিজেদের গ্রাহক ধরে রাখতে মরিয়া এয়ারটেল, ভোডাফোন। আর তাই বিভিন্ন ধরনের প্ল্যান লঞ্চ করছে তারা। আর তাতে মিলছে একাধিক সুবিধাও।

সেদিকে তাকিয়েই গ্রাহকদের জন্যে দারুণ একটা প্ল্যান আনল এয়ারটেল। দাম ৫৯৯ টাকা। বৈধতা ৮৪ দিন। এখন থেকে এয়ারটেল প্রিপেড গ্রাহকরা এই রিচার্জ করলে তিন মাসের জন্য ৪ লক্ষ টাকার জীবন বিমার সুবিধা পাবেন। এর জন্য ভারতী অ্যাক্সা লাইফ ইনস্যুরেন্স সংস্থার সঙ্গে গাঁটছড়া বেঁধেছে ভারতী এয়ারটেল। এমনটাই টেলিকম এই সংস্থার তরফে জানানো হয়েছে।

৫৯৯ টাকার নয়া এই রিচার্জে বেশ কিছু সুযোগ সুবিধা পাবেন গ্রাহকরা। যার মধ্যে ৮৪দিন আনলিমিটেড কলের সুবিধা পাবেন ইউজাররা। শুধু তাই নয়, মিলবে প্রতি দিন ২ জিবি করে ডেটা সঙ্গে ১০০টি এসএমএস, পাশাপাশি, এই রিচার্জ করলে ৪ লক্ষ টাকার জীবন বিমার সুবিধা পাবেন সংশ্লিষ্ট গ্রাহক। কিন্তু মিললেই তো হবে না। এই বিমার সুবিধা কীভাবে কার্যকর হবে সেই বিষয়েই এয়ারটেলের তরফে জানানো হয়েছে।

এয়ারটেলের তরফে জানানো হয়েছে যে, ৫৯৯ টাকার রিচার্জ করার সঙ্গে সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ইউজার ৪ লক্ষ টাকার জীবন বিমার সুবিধায় অন্তর্ভুক্ত হয়ে যাবেন। যা কার্যকর থাকবে তিন মাস। পরবর্তী রিচার্জে আবার তা চালু হয়ে যাবে। তবে, এর জন্য গ্রাহকের বয়স ১৮-৫৪ বছর হতে হবে। লাগবে না কোনওরকম ডাক্তারি পরীক্ষার রিপোর্ট। এয়ারটেল সংশ্লিষ্ট গ্রাহককে অনলাইনে বিমার শংসাপত্র পাঠাবে।’

এছাড়া, যদি কোনও গ্রাহক সেই শংসাপত্রের হার্ড-কপি চান, তাহলে এয়ারটেলের পক্ষ থেকে তা গ্রাহকের বাড়িতে পৌঁছে দেওয়া হবে। রিচার্জের পর গ্রাহককে বিমার সুবিধা পেতে হলে এসএমএস, এয়ারটেল থ্যাঙ্কস অ্যাপ বা এয়ারটেলের খুচরো বিপণিতে নিজের নাম নথিভুক্ত করতে হবে। বর্তমানে দিল্লি সহ কয়েকটি রাজ্যে এই সুবিধা চালু হলেও আগামী দিনে দেশের সমস্ত রাজ্যের গ্রাহক বিমার সুবিধা পাবেন।