শূন্যপদে ইঞ্জিনিয়ার নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি জারি করল এয়ার ইন্ডিয়া ইঞ্জিনিয়ারিং সার্ভিস লিমিটেড৷ এয়ারক্রাফট ম্যানটেনেন্স ইঞ্জিনিয়ার(এএমই) পদে শতাধিক ইঞ্জিনিয়ার করা হবে৷ জেনে নিন খুঁটিনাটি তথ্য৷

এআইইএসএল রিক্রুটমেন্ট ২০১৯: পদ
Fresh Vacancies – 141 posts
Carried Forward – 19 posts

যোগ্যতা: আবেদনকারীর নুন্যতম শিক্ষাগত যোগ্যতা হওয়া চাই ১০+২৷ প্রতিষ্ঠিত কোনও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে বিজ্ঞান বিভাগে পড়াশোনা করা চাই৷ বিষয় হবে ফিজিক্স, কেমিষ্ট্রি ও অংক৷

বয়স: ৫৫ বছর বয়স অবধি এই পদে আবেদন করা যাবে৷ ১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ সালের পর ৫৫ বছর অতিক্রম হয়ে গেলে আবেদন করা যাবে না৷

নির্বাচন পদ্ধতি: পার্সোনাল ইন্টারভিউয়ের মাধ্যমে নিয়োগ করা হবে৷ ইন্টারভিউ হবে সকাল সাড়ে ৯টা থেকে ১২টার মধ্যে৷ ইন্টারভিউয়ের তারিখ নিচে উল্লেখ করা হয়েছে৷ ওই দিনগুলিক মধ্যে ইন্টারভিউ বোর্ডের সামনে হাজির হতে হবে৷ তবে এই ইন্টারভিউ হবে দিল্লির এয়ার ইন্ডিয়ার জেট ইঞ্জিন ওভারহউল কমপ্লেক্স৷ আবেদনকারীর ইন্টারভিউ নেবে হিউমান রিসোর্স ডিপার্টমেন্ট৷

পে স্কেল: চাকরির জন্য নির্বাচিত হলে মাসিক মাইনে হবে ৯৫ হাজার থেকে ১ লক্ষ ২৮ হাজার টাকা৷

কী করে আবেদন করবেন? ১ এপ্রিল থেকে ১২ এপ্রিল নির্ধারিত সময়ে হবে ইন্টারভিউ৷ ঠিক সময়ের মধ্যে এয়ার ইন্ডিয়ার জেট ইঞ্জিন ওভারহউল কমপ্লেক্সে পৌঁছে যেতে হবে৷ সঙ্গে নিয়ে যেতে হবে আবেদন ফি৷ জেনারেলদের জন্য এই ফি ১০০০ টাকা৷ এসসি/এসটি ও অবসরপ্রাপ্ত সেনাদের জন্য ফি ৫০০ টাকা৷ এই টাকাটি ফেরতযোগ্য নয়৷ ইন্টারভিউয়ের সময় ফি জমা দিতে হবে৷ এছাড়া প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট যেমন পরীক্ষার রেজাল্ট ইত্যাদির অরিজিনাল কপি নিয়ে যেতে হবে৷

চাকরির মেয়াদ: পাঁচ বছর

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।