নয়াদিল্লি: দেশ জুড়ে ক্রমেই বেড়ে চলেছে করোনা ভাইরাস আতঙ্ক। ইতিমধ্যে আক্রান্তের সংখ্যা তিন হাজার পেরিয়ে গিয়েছে। পাশপাশি বেশ কয়েকজন মারা গিয়েছে। পরিস্থিতি হাতে বাইরে যাতে না যায় সেই কারণে দেশ জুড়ে চলছে লক ডাউন। তারই মাঝে দেশের অন্যতম রাষ্ট্রায়ত্ত এয়ারলাইন এয়ার ইন্ডিয়া চিন থেকে গুরুত্বপূর্ণ চিকিৎসা সামগ্রী নিয়ে এল পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার জন্য।

অসামরিক বিমান চলাচল এবং এয়ার ইন্ডিয়া দুই দেশের মধ্যে চিকিৎসা সামগ্রী পরিবহনের বিষয় নিয়ে কাজ করে চলেছে দীর্ঘদিন ধরে। সেই কারণে এয়ার ইন্ডিয়ার প্রথম কার্গো বিমান ৪ এপ্রিল ২০২০সালে চিন থেকে এই ২১ টন চিকিৎসা সামগ্রী নিয়ে দেশে পা রাখে। যার ফলে মনে করা হচ্ছে এই সব সামগ্রী দেশের চিকিৎসক এবং চিকিৎসা কর্মীদের ভীষণ ভাবে সাহায্য করবে। করোনা ভাইরসের কারণে প্রতিটি রাজ্যর প্রশাসন আপ্রাণ চেষ্টা করে চলেছে। আর সেই কারণে সবার আগে রাজ্যর চিকিৎসক এবং স্বাস্থ্য কর্মীদের নিরাপত্তা সবার আগে প্রয়োজন। সেই কারণেই এই পদক্ষেপ বলে মনে করা হচ্ছে।

এছাড়া জানানো হয়েছে এই দুই দেশের মধ্যে মোট ১১৬ টি বিমান চলাচল করবে লাইফ লাইন উড়ান প্রকল্পে। যার মধ্যে ৭৯ তা বিমান নিয়ন্ত্রন করবে এয়ার ইন্ডিয়া এবং এলায়েন্স এয়ার। এই কার্গো বিমানের মধ্যে কোভিড ১৯ ভাইরাস সংক্রান্ত সকল মেডিক্যাল কিট মাস্ক, গাল্ভস, এবং বাকি চিকিৎসা সামগ্রী চিন থেকে ভারতে আনা হবে। এই পদক্ষেপের ফলে ভারতে চিকিৎসা ব্যবস্থা কিছুটা হলেও উন্নতি ঘটবে বলেও মনে করা হচ্ছে।

এই লাইফ লাইন উড়ান ফ্লাইট মূলত কাজ করবে হাব এবং স্পিক মডেল হিসেবে। এছাড়া কার্গো হাব যা মূলত দিল্লি, মুম্বই,কলকাতা,চেন্নাই সহ বড় শহরের মধ্যে পরিষেবা প্রদান করবে সেখানে লাইফ লাইন উড়ান মূলত গুয়াহাতি,দিব্রুগড়, দিমাপুর,ইম্ফল, শ্রীনগর, পোর্ট ব্লেয়ার, কোচিন এর মোট শহরের সঙ্গে সংযোগ সাধন করবে। যার ফলে চিকিৎসা সংক্রান্ত এই সুবিধা পৌঁছে দেওয়া সম্ভব হবে অপেক্ষাকৃত ছোট জায়গাতেও।