নয়াদিল্লি: দীর্ঘদিন ধরেই ঋণের ভারে জর্জরিত দেশের সরকারি বিমান পরিবহণ সংস্থা ‘এয়ার ইন্ডিয়া।’ এবার কয়েক হাজার কোটি টাকা তুলতে এয়ারক্রাফট বিক্রি ও লিজ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিল এই সংস্থা। অন্তত সাতটি এয়ারক্রাফট বিক্রি বা লিজ দেওয়া হবে বলে জানা গিয়েছে। এইভাবে ৬১০০ কোটি টাকা তোলা সম্ভব হবে বলে জানা গিয়েছে।

২০১৬ থেকে ২০১৮-র মধ্যে ভারতে এসেছিল ছ’টি বোয়িং 787 ও একটি বোয়িং 777 এয়ারক্রাফট। সেগুলিই বিক্রি বা লিজ দেওয়ার বন্দোবস্ত করা হচ্ছে। আগামী ১৫ দিনের মধ্যেই সেই প্রসেস সম্পূর্ণ হবে। এয়ারলাইনসের সব কাজকর্ম খতিয়ে দেখা হবে বলে জানিয়েছেন সিভিল অ্যাভিয়েশন সেক্রেটারি আরএন চৌবে।

গত মাসেই চৌবে জানিয়েছিলেন, ঋণে জর্জরিত এয়ার ইন্ডিয়াকে সরকার সমস্ত রকম সাহায্য করার চেষ্টা করছে।

প্রতিমাসে ২০০ থেকে ২৫০ কোটি টাকা ঘাটতিতে ভুগছে সংস্থাটি৷ সিভিল এভিয়েশন মিনিস্ট্রির তরফে একথা আগেই স্বীকার করা হয়েছে৷

প্রতীকী ছবি

সংশ্লিষ্ট মন্ত্রক পার্লামেন্টের পাব্লিক অ্যাকাউন্টস কমিটিকে জানিয়েছে, টাকার কমতির কারণে পরিকল্পনা বাস্তবায়িত করতে পারা যাচ্ছে না৷ ২০১১ সাল থেকে এটি পরিকল্পনাটি একইভাবে পড়ে রয়েছে৷ প্রতি মাসে ২০০ থেকে ২৫০ কোটি টাকার ঘাটতি তৈরি হয়৷ এই ঘাটতি যাতে না হয়, তার জন্য সবরকম চেষ্টা করা হয়েছে৷ কিন্তু পরিস্থিতির উন্নতি হয়নি৷

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ