নয়াদিল্লি: রাষ্ট্রায়ত্ত বিমান সংস্থা এয়ার ইন্ডিয়া বেচার জন্য মরিয়া এখন মোদি সরকার। বর্তমানে এই সংস্থাটি ঋণের বোঝায় জর্জরিত। কিন্তু ফের সংসদ উত্তাল হল এয়ার ইন্ডিয়া ইস্যুতে। কারণ বিরোধীদের পক্ষ থেকে এয়ার ইন্ডিয়া বিক্রি না করার দাবি উঠলো। তার প্রেক্ষিতে বিমান পরিবহন মন্ত্রী হরদীপ সিং পুরি প্রশ্ন তুললেন, ভেবে দেখুন বেসরকারিকরণ হবে নাকি বন্ধ করে দেওয়া হবে এয়ার ইন্ডিয়াকে।

তৃণমূলের দীনেশ ত্রিবেদী, সিপিএমের ঝর্না দাস বৈদ্য কংগ্রেসের কেসি বেনুগোপাল এয়ার ইন্ডিয়ার বেসরকারীকরণের প্রতিবাদ করেন।

এরই প্রেক্ষিতে বিমান পরিবহনমন্ত্রী তাদের কাছে এয়ার ইন্ডিয়া বাস্তব অবস্থাটা তুলে ধরতে চান। মনে করিয়ে দেন, এই সংস্থাটি ৬০,০০০ কোটি টাকা লোকসানে চলছে। আর যদি এই অবস্থায় বেসরকারিকরণ না করা যায় তাহলে বিকল্প কি, তাহলে তো বন্ধই করে দিতে হবে।

দীনেশ ত্রিবেদীর অবশ্য বক্তব্য, এয়ার ইন্ডিয়া থাকলে হিন্দুস্তান থাকবে। তাছাড়াকেন্দ্রীয় সরকার বন্দে ভারত মিশনের আওতায় এয়ার ইন্ডিয়ার বিমানে চাপিয়ে আটকে পড়া নাগরিকদের দেশে ফিরিয়ে আনা হয়েছে। এদিন এয়ার ইন্ডিয়ার বিক্রি রুখতে সংসদে সেই প্রসঙ্গও তোলেন তৃণমূল সাংসদ।

দীনেশ ত্রিবেদীর বন্দে ভারত মিশনের আওতায় বিদেশ থেকে প্রচুর ভারতীয়কে ফিরিয়ে আনার জন্য সরকারের প্রশংসা করেন। একইসঙ্গে মনে করিয়ে দেন , এই কাজটা করেছে এয়ার ইন্ডিয়া। প্রয়োজন হলে এয়ার ইন্ডিয়ার পরিকাঠামোগত সংস্কার করতেই পারেন। তবে এটি বিক্রি না করা আবেদন জানান।

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।