নয়াদিল্লি: বালাকোটে এয়ারস্ট্রাইক করার সময় স্পাইস বোমা দিয়েই জঙ্গিদের টার্গেট করেছিল এয়ার ফোর্স। সেই বোমা নাকি বিল্ডিংয়ে সামান্য আঘাত করেই উড়িয়ে দিএছিল জঙ্গিদের। এবার সেই ইজরায়েলি বোমার আরও আধুনিক ভার্সান কিনছে ভারত।

এবার শত্রুপক্ষের বাংকারে আঘাত করার জন্য কেনা হচ্ছে নতুন ভার্সানের বোমা। এই ভার্সানের নাম বাংকার বাস্টার। কেনা হলে তিন বাহিনীরই হাতে থাকবে সেই বোমা।

এই বোমা ব্যবহার করলে তা শত্রুদের বাড়ি এবং বাঙ্কারকে নিমেষে ধুলোয় পরিণত করে। অর্থাত্‍ এই বোমা এতটাই আধুনিক যে তা মুহূর্তে মাটিতে মিশিয়ে দেবে বাড়ি থেকে বাঙ্কার। স্পাইস-২০০০ বোমা মিরাজ-২০০০ যুদ্ধবিমানের মাধ্যমে ব্যবহৃত হয়।

সূত্রের খবর, ভারতীয় বায়ুসেনা এখন পরিকল্পনা করেছে বাঙ্কার ভাঙা এবং বাড়ি ধ্বংস করার জন্য মার্ক-৮৪ মানের স্পাইস-২০০০ বোমা কেনার। আগে যে স্পাইস-২০০০ বোমা ব্যবহার করা হয়েছিল বালাকোটে তা ছিল বাড়ি ভেদ করে গর্ত দিয়ে ভেতরে গিয়ে বিস্ফোরণ ঘটানোর। এবার আরও অত্যাধুনিক কেনার পরিকল্পনা করা হচ্ছে।

এই বোমা এবং তার সরঞ্জাম কিনতে খরচ পড়বে ৩০০ কোটি টাকা। ইজরায়েলের কাছ থেকে এই বোমা কেনার পরিকল্পনা করা হয়েছে। ৬০ কিমি দূরত্বে শত্রুপক্ষের ঘাঁটিতে গিয়ে তা বিস্ফোরণ ঘটাতে সক্ষম। তাতে ধূলিসাত্‍ হয়ে যাবে বাঙ্কার এবং বাড়ি।

SPICE এর পুরো নামটি হল Smart Precise Impact and Cost Effective, এর দ্বারা ডাম্ব বা আনগাইডেড বোমাকে স্মার্ট গাইডেড এয়ার-টু-সারফেস বোমায় রূপান্তরিত করা হয়৷ যা স্ট্যান্ডঅফ রেঞ্জ থেকে ফেলা যায়৷ ইজরায়েলি কোম্পানি পোপে মিশাইল এটি তৈরী করে৷ হাই-ভ্যালু টার্গেটের বিরুদ্ধে অসাধারণ নিপুণতা অর্জন করার জন্য এটি উন্নত ইলেকট্রো-অপটিক্যাল গাইডেন্স সিস্টেম ব্যবহার করে।

SPICE 2000 একটি সিন- ম্যাচিং টেকনোলজি ব্যবহার করা হয়৷ যা টার্গেট চিহ্নিত করে ও এস ট্র্যাকারের সাহায্যে তাতে আঘাত করে৷ স্পাইস পরিবারের অন্তর্গত SPICE 2000 নির্ধারিত লক্ষ্যবস্তুর লোকেশনে ভুল এবং জিপিএস জ্যামিং প্রতিরোধ করে পাশাপাশি ক্ষয়ক্ষতি হ্রাস করতে পারে।