নয়াদিল্লি : কতটা প্রস্তুত ভারত, যদি সীমান্তে চিনা সেনাকে মোকাবিলা করার পরিস্থিতি তৈরি হয়? সেই প্রস্তুতিই খতিয়ে দেখলেন বায়ুসেনা প্রধান আর কে এস ভাদোরিয়া। বৃহস্পতিবার ওয়েস্টার্ন কমান্ডের ফ্রন্টলাইন এয়ারবেস থেকে মিগ-২১ বাইসন জেট ওড়ালেন তিনি। ঘুরে দেখলেন বায়ুসেনার প্রস্তুতি।

পূর্ব লাদাখে ভারত চিন সীমান্তে উত্তেজনা বাড়ছে। সেই প্রেক্ষিতে তৈরি রয়েছে বায়ুসেনা। ওয়েস্টার্ন কমান্ডের অধীনে যে এয়ার বেস বা বায়ুসেনা ঘাঁটিগুলি রয়েছে তার প্রস্তুতি ব্যবস্থা খতিয়ে দেখেন ভাদোরিয়া। প্রতিটি বায়ুসেনা ঘাঁটিতে সতর্কতা জারি করা হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

উল্লেখ্যে এই ওয়েস্টার্ন কমান্ড লাদাখ সমেত উত্তর ভারতের বিভিন্ন প্রান্তের আকাশসীমার নজরদারি করে। কতটা গুরুত্ব সহকারে নজরদারি চলছে, কোথায় কোথায় নজরদারি বাড়াতে হবে, সে বিষয়গুলি খতিয়ে দেখেন বায়ুসেনা প্রধান। এদিন বেশ কয়েকজন উচ্চপদস্থ বায়ুসেনা পাইলটের সঙ্গে মিগ ২১ বাইসন ওড়ান তিনি।

মিগ ২১ বাইসন সিঙ্গল ইঞ্জিন ও সিঙ্গল সিটার ফাইটার জেট এয়ারক্রাফট। রাশিয়া থেকে এই জেটগুলি আনা হয়েছে। বেশ কয়েক দশক ধরে ভারতীয় বায়ুসেনার গুরুত্বপূর্ণ অংশ এই মিগ জেট।

১৯৭১ সালের ভারত পাকিস্তান যুদ্ধে এই মিগ বিমান গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিয়েছিল। গত দুই মাসে বায়ুসেনা লাদাখ সীমান্তে মোতায়েন করেছে কিছু ফ্রন্টলাইন ফাইটার জেট। সীমান্তে রয়েছে সুখোই ৩০ এমকেআই, জাগুয়ার, মিরাজ ২০০০। প্রতিদিন কমব্যাট এয়ার পেট্রোলিং চলছে লাদাখ সীমান্তে।

রয়েছে অ্যাপাচে অ্যাটাক চপার, চিনুক হেভি লিফ্ট কপ্টার। এদিকে, পূর্ব লাদাখে চিনা সেনার ওপর নজর রাখতে দেশে তৈরি লাইট কমব্যাট হেলিকপ্টারও মোতায়েন করা হয়েচে। এই ধরণের দুটি কপ্টার মোতায়েন করা হয়েছে বলে জানানো হয়েছে। হ্যাল বা হিন্দুস্তান এয়ারোনটিকস লিমিটেডের তৈরি এই স্বল্প ওজনের হেলিকপ্টার অতি উচ্চতায় বায়ুসেনার নজরদারিতে সাহায্য করবে বলে জানানো হয়েছে।

লাইট কমব্যাট হেলিকপ্টার বা এলসিএইচ ভারতীয় বায়ুসেনার হাই অল্টিটিউড মিশনগুলিতে কাজ করবে। এক ট্যুইট বার্তায় হ্যাল এই তথ্য দিয়েছে। জানা গিয়েছে লাদাখে সবচেয়ে বিপদসংকুল হেলিপ্যাডে অবতরণ করতে সক্ষম এই কপ্টার দুটি। হালকা ওজনের হওয়ায় খুব দ্রুত চলাচলের ক্ষমতা রয়েছে এলসিএইচের। লাদাখের পার্বত্য ও জটিল অবস্থানগুলিতে দ্রুত কাজ করতে সক্ষম এলসিএইচ।

পাশাপাশি এলসিএইচের যে কোনও তাপমাত্রায় কাজ করার ক্ষমতা রয়েছে। এলসিএইচ দিন বা রাতে নিখুঁত নিশানায় কাজ করে। প্রচুর অস্ত্র বহন করার ক্ষমতা রাখে এই কপ্টারগুলি।

এই বৈশিষ্ট্যগুলি এলসিএইচকে বায়ুসেনার উচ্চ ঝুঁকিপূর্ণ ও অধিক উচ্চতার অপারেশনে সাহায্য করে। সম্পূর্ণ দেশীয় পদ্ধতিতে তৈরি এলসিএইচ লাদাখে বায়ুসেনার শক্তি বৃদ্ধি করতে সাহায্য করবে বলে আশা করা হচ্ছে।

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও