নয়াদিল্লি: কমার্শিয়াল পার্টনার আইএমজিআরের সঙ্গে স্বাক্ষরিত চুক্তি অনুযায়ী এবার আইএসএল’কে পাকাপাকিভাবে শীর্ষ লিগ করার পথে হাঁটল ভারতের ফুটবল ফেডারেশন। মাস্টার রাইট এগ্রিমেন্ট অনুযায়ী এবার আইএসএল চ্যাম্পিয়নকে এএফ সি চ্যাম্পিয়ন্স লিগ স্লট পাইয়ে দেওয়ার জন্য এএফসি’কে আবেদন জানাবে এআইএফএফ। মঙ্গলবার ফেডারেশনের তরফ থেকে এই কথা ঘোষণা করা হয়।

নয়াদিল্লিতে মঙ্গলবার ফেডারেশনের কার্যকরী সমিতির সভায় সিদ্ধান্তটি গৃহীত হয়। এআইএফএফ’র তরফ থেকে জানানো হয়, আইএমজিআরের সঙ্গে মাস্টার রাইট এগ্রিমেন্ট অনুযায়ী এই সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে। অর্থাৎ ফেডারেশনের সিদ্ধান্ত এশিয়ান ফুটবল কনফেডারেশনের দরবারে সাদরে গৃহীত হলে আই লিগ চ্যাম্পিয়নদের ছাপিয়ে আইএসএল চ্যাম্পিয়নরা এএফ সি চ্যাম্পিয়ন্স লিগে খেলার যোগ্যতা অর্জন করবে। যে সুযোগ এতদিন পেত আই লিগ চ্যাম্পিয়ন দল। পাশাপাশি ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগকে সমর্থন জানিয়ে ফেডারেশন বেশ কিছু বিষয়ে আইএসএলের বিষয়ে সাফাই দিয়েছে ফেডারেশন।

এআইএফএফের কথায়, গত পাঁচবছর ধরে টিভি সম্প্রচার থেকে উপার্জিত অর্থ তো বটেই একইসঙ্গে নতুন ফুটবলার তুলে আনার ক্ষেত্রে আই লিগের চেয়ে আইএসএল অনেক বেশি সদর্থক ভূমিকা গ্রহণ করেছে। তৃণমূল স্তর থেকে ফুটবলার তুলে আনা হোক কিংবা ইয়ুথ ডেভেলপমেন্টের ক্ষেত্রেও আইএসএলের ভূমিকাকে এএফসি স্বীকৃতি দিয়েছে বলে জানানো হয় ফেডারেশনের তরফ থেকে। এমনকি এআইএফএফের কথায় দর্শক সংখ্যার বিচারেও বাজিমাত করেছে ইন্ডিয়ান সুপার লিগ।

গত ৩ জুলাই ভারতীয় ফুটবলের রোডম্যাপ তৈরির বিষয়ে আই লিগ ক্লাবদের সঙ্গে বসেছিলেন ফেডারেশন সভাপতি। সেখানে আই লিগ ক্লাব জোটকে বেশ কিছু প্রস্তাবও দিয়েছিলেন প্রফুল্ল প্যাটেল। যার মধ্যে ছিল এসিএল স্লট ছেড়ে দেওয়ার প্রস্তাবটিও চিল। যে সিদ্ধান্ত একেবারেই মানেনি আই লিগ ক্লাব জোট। বাধ্য হয়ে খোলা চিঠিতে আই লিগকে বাঁচাতে প্রধানমন্ত্রীর দ্বারস্থ হয়েছিল তারা। বিষয়টি মোটেও ভালোচোখে গ্রহণ করেনি ফেডারেশন। এক্ষেত্রেও সমস্যা সমাধানের জন্য এএফসি-র দ্বারস্থ হয়েছে এআইএফএফ।