স্টাফ রিপোর্টার, জলপাইগুড়ি: ধর্ষিতাদের রেট বেঁধে দিচ্ছে তৃণমূল। রাজগঞ্জে দুই নাবালিকাকে অপহরণ করে গণধর্ষণের অভিযোগের ঘটনায় প্রতিবাদ করতে গিয়েই এমনই বিতর্কিত মন্তব্য করলেন বিজেপির মহিলা মোর্চার রাজ্য সভানেত্রী অগ্নিমিত্রা পল।

নিগৃহীতার বাড়ি গিয়ে তিনি বললেন, “বিবাহিত মহিলা ধর্ষিতা হলে ২০ হাজার টাকা, অবিবাহিতা হলে তিনি পাচ্ছেন ২৫ হাজার টাকা।”

৪ সেপ্টেম্বর জলপাইগুড়ি জেলার রাজগঞ্জের সন্ন্যাসীকাটা গ্রাম পঞ্চায়েতের নবগ্রামে দুই নাবালিকাকে অপহরণ করে গণধর্ষণের অভিযোগ উঠেছিল প্রতিবেশী পাঁচ যুবকের বিরুদ্ধে। গণধর্ষণের শিকার ওই দুই নাবালিকা অপমানে বিষ খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করে।

দু’জনকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে সেখানে একজনের মৃত্যু হয়। ওই দুই নির্যাতিতার বাড়ি এসে পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে দেখা করেন। তাঁদের অভাব-অভিযোগের কথাও শোনেন। সেখানেই রাজ্যের শাসকদল তৃণমূলকে আক্রমণ করেন তিনি।

রাজ্য সরকারকে তোপ দেগে অগ্নিমিত্রা পলের মন্তব্য, “ধর্ষণ রোধ করার চেষ্টা না করে ওরা রেট বেঁধে দিচ্ছে ধর্ষিতা মহিলাদের জন্য। বিবাহিত মহিলা ধর্ষিতা হলে ২০ হাজার টাকা আর অবিবাহিতা যদি ধর্ষিতা হয়ে থাকেন সেক্ষেত্রে ২৫ হাজার টাকা।”

ফাইল ছবি

এরপরই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে কটাক্ষ করে বলেন, “উনি ধর্ষণ থামানোর চেষ্টা করছেন না। শাস্তির কথাও বলছেন না। এমনকী, ধর্ষিতাদের বিচার দেওয়ারও চেষ্টা করছেন না! উনি ভাল থাকুন। সুস্থ থাকুন। বয়স হয়েছে অবসর নিয়ে নিন পারলে। আমরা সোনার বাংলা গড়ে তুলব। ওঁর চিন্তা করার কোনও দরকার নেই। ” এর আগেও রাজ্যে একাধিক ধর্ষণের ঘটনায় সরব হয়েছিলেন অগ্নিমিত্রা পল। রাজ্যের শাসক দল তৃণমূলকে কড়া আক্রমণ করেছেন তিনি।

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।