রোম: ফের করোনা মাথাচাড়া দিচ্ছে। ফলে ইটালিতে সরকার আবার বিভিন্ন জায়গায় কড়া বিধি নিষেধ আরোপ চলেছে। আর সেই করাকড়ি দেখে ক্ষোভ বাড়ছে জনগণের মধ্যে। আর সেই ক্ষোভ থেকেই পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ হতে দেখা গিয়েছে উত্তর ইতালির বিভিন্ন অঞ্চলে।

সোমবার রাতেরএই অশান্তিতে আহত হয়েছেন অনেকে। বহু দোকানে লুটপাট চালিয়েছেন বিক্ষোভকারীরা। বিক্ষুব্ধদের নিয়ন্ত্রণ করতে মিলানে কাঁদানে গ্যাস ছোড়ে পুলিশ। মিলানের রাস্তায় মশাল মিছিল করেছে স্থানীয় মানুষ। অল্প বয়সী ছেলে-মেয়ে থেকে বয়স্ক নাগরিকরাও ছিলেন মিছিলে।

ইটালিতে নতুন করে করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ায় বার এবং রেস্তোরাঁগুলি সন্ধ্যে ছয়টার মধ্যে বন্ধ করে দেওয়ার নির্দেশ দেয় সরকার। পাশাপাশি সিনেমা জিম সুইমিংপুল বন্ধ রাখতে বলা হয়েছে। এসবেই প্রবল আপত্তি বিক্ষোভকারীদের। পুলিশ ইতিমধ্যেই ২৮ জন বিক্ষোভকারীকে আটক করেছে। এদের মধ্যে১৮জন ইতালির নাগরিক এবং ১০জন বিদেশি। ১৩জন নাবালক।

কয়েকদিন আগেই ফ্রান্সের নটি শহরে বিধি নিষেধ আরোপ করা হয়েছে। আবার জার্মানিতে লাফিয়ে বাড়ছে সংক্রমনের মাত্রা। জার্মানির অর্থনীতি স্বাভাবিক অবস্থায় ফেরার পথে নতুন বাধা হয়ে দাঁড়াচ্ছে এই সংক্রমণ। গোটা ইউরোপের অর্থনীতি ঘুরে দাঁড়ানোর আশা জাগিয়ে ছিল এবার সেটা কিছুটা ধাক্কা খাবে বলে মনে করা হচ্ছে। জার্মানিতে ২৮০টি অঞ্চল হট স্পট হিসেবে চিহ্নিত হয়েছে।

জেলবন্দি তথাকথিত অপরাধীদের আলোর জগতে ফিরিয়ে এনে নজির স্থাপন করেছেন। মুখোমুখি নৃত্যশিল্পী অলোকানন্দা রায়।