ফাইল ছবি

স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: বরাবর তিনি প্রতিবাদী। অন্যায়ের বিরুদ্ধে হাতে তুলে নেন কলম। তাঁর প্রতিবাদের ভাষা কবিতা। পশ্চিমবঙ্গের শাসকের নিন্দা থেকে শুরু করে রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাসের বিরোধিতা করা কবি মন্দাক্রান্তা সেনের স্বভাব সিদ্ধ। কবিতার জন্য পেয়েছেন আনন্দ পুরস্কার। তিনি এবার NRS কাণ্ডের জেরে হাতে তুলে নিলেন কলম।

NRS হাসপাতাল চত্বর জুনিয়ার ডাক্তারকে মারধরের ঘটনাকে কেন্দ্র করে ধুন্দুমার হয়ে মঙ্গলবার। ৮৫ বছর বয়সী একজনের মৃত্যুতে ডাক্তারের গাফিলতিকে অভিযোগ হিসেবে খাঁড়া করে মৃতের পরিবার জুনিয়র ডাক্তারের মাথার খুলি ফাটিয়ে দেয় বলে অভিযোগ। এর জেরে বিজেপি নেতা মুকুল রায় মুখ্যমন্ত্রীর পদত্যাগ দাবি করেছেন। সারা বাংলার মানুষ ধিক্কার জানিয়েছেন এই ঘটনাটির।

রাজ্যে চূড়ান্ত বিশৃঙ্খলার পরিস্থিতিতে হাতে কলম তুলে নিলেন কবি মন্দাক্রান্তা সেন। তিনি নিজের ফেসবুক দেওয়ালে বুধবার সকালে লেখেন তরুণ চিকিৎসকের পক্ষে ‘অমর’ কবিতাটি। এই কবিতায় মন্দাক্রান্তা লেখেন–

তরুণ চিকিৎসকের ওপর প্রাণঘাতী এই হামলা
টিভিতে খবর দেখতে দেখতে কতজন পথে নামলাম?
অসুস্থতায় কখনো কখনো মৃত্যু তো অবধারিত
জন্মিলে আহা মরিতেই হবে এ কথা মানতে পারি তো?

অমর হওয়ার বর নয়, ওরা মানুষকে চায় বাঁচাতে
অমানুষ যত তাদের রক্ত খেয়েছে রক্তে আঁচাতে
মানুষ বাঁচাতে শিখেছে তো ওরা তোমার আমার জন্য
আমাদের বেলা জীবনের দাম, ওদের কেন তা অন্য!

এতটা বছর প্রাণ বাঁচানোর বিদ্যাকে ভরে ঝুলিতে
প্রতিদান পেলে তুমি আজ ওই ভেঙে চুরমার খুলিতে
ওখানেই ছিল ওখানেই আছে বসত কঠিন শিক্ষার
যারা তা জানে না, যারা তা মানে না, ধিক্কার তাকে ধিক্কার

অমর হওয়ার বর নেই, তবু তরুণ চিকিৎসককে
বলি লড়ে যাও আমার জন্য, আমিও তোমার পক্ষে

কবিতাটি পড়লেই বোঝা যায় এই মুহূর্তে কবির মন কতটা ব্যাথিত। যারা এই ন্যক্কারজনক ঘটনার সঙ্গে যুক্ত তাঁদের প্রতি মন্দাক্রান্তা একরাশ ঘৃণা ঢেলে দিয়েছেন এই কবিতায়। গোটা ঘটনাটির প্রতি ধিক্কার জানিয়েছেন কবি।