স্টাফ রিপোর্টার, বর্ধমান: ভোটার তালিকা তৈরির জন্য নির্বাচন কমিশনের কত নম্বর ধারাটি প্রযোজ্য? টোল ফ্রি কোন নম্বর রয়েছে? কি ধরণের প্রতিবন্ধকতাকে এরোনেট হিসাবে গ্রহণ করা হয়? এইআরওদের নিযুক্তির ক্ষেত্রে কোন আইনটি প্রযোজ্য? এরকম প্রায় ৩০টি এক নম্বরের প্রশ্নের উত্তর দিতে হল পূর্ব বর্ধমান জেলার নির্বাচন দফতরের এইআরওদের।

ভোটার তালিকায় নতুন নাম তোলা, সংশোধন প্রভৃতি কাজের সঙ্গে যুক্ত নির্বাচন দফতরের অধীন যে সমস্ত ইআরও এবং অতিরিক্ত ইআরওরা রয়েছেন– তাঁরা আদতেই নির্বাচন কমিশনের বিভিন্ন আইন সম্পর্কে কতটা জানেন? এই প্রশ্নকে সামনে রেখেই কেন্দ্রীয় নির্বাচন কমিশনের নির্দেশে দুদিন ধরে পূর্ব বর্ধমান জেলায় মোট ১৬০ জনের রীতিমত লিখিত পরীক্ষা নেওয়া হল। মোট ৩০ নম্বরের পরীক্ষায় দু-একজন তুলনামূলক টেনেটুনে পাশ মার্ক পেয়ে গেলেও অধিকাংশ পরীক্ষার্থীই ৮০ শতাংশেরও বেশি নম্বর পেলেন।

পূর্ব বর্ধমান জেলা নির্বাচন আধিকারিক উত্পল কুমার ঘোষ জানিয়েছেন, কেন্দ্রীয় নির্বাচন কমিশনের নির্দেশে দুদিন ব্যাপী একটি সার্টিফিকেশন কোর্স করা হয়েছে। প্রথম দিন যাঁরা অনুপস্থিত ছিলেন শুক্রবার তাঁদের পরীক্ষা নেওয়া হয়েছে। একইসঙ্গে ভোটার তালিকায় নাম তোলা, সংশোধন প্রভৃতি কাজের ক্ষেত্রে খুঁটিনাটি বিষয়ে তাঁদের অবগত করানো হয়েছে।

তিনি আরও জানিয়েছেন, এই ধরণের লিখিত পরীক্ষা নেওয়ার ঘটনা এবছরই প্রথম। এদিন এই সার্টিফিকেশন কোর্সে অভিজ্ঞ প্রশিক্ষক হিসাবে হাজির ছিলেন পূর্ব বর্ধমান জেলা পরিষদের অতিরিক্ত জেলাশাসক বাসব বন্দোপাধ্যায়। প্রায় সমস্ত পরীক্ষার্থীরাই এদিন ভালো ফল করেছেন। সিংহভাগই ৩০ নম্বরের মধ্যে ২৮ নম্বর পর্যন্ত পেয়েছেন।

Proshno Onek II First Episode II Kolorob TV