স্টাফ রিপোর্টার, মালদহ: ফের ডেঙ্গুর প্রকোপ জেলায়৷ মালদহ জেলার ইংরেজবাজার পুরসভার ১০ নম্বর ওয়ার্ডে আবারও ডেঙ্গু জাঁকিয়ে বসেছে৷ ইতিমধ্যেই ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে অসুস্থ হয়ে পড়েছেন তিন বাসিন্দা৷ তাঁদের মধ্যে দু’জনকে কলকাতার হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়৷ অন্যজন ওই এলাকার বাসিন্দা মায়া দাস৷ রক্ত পরীক্ষা করার পর তাঁর ডেঙ্গু ধরা পড়ে৷

স্থানীয় সূত্রে খবর, বেশ কিছুদিন থেকেই ওই এলাকার দুই বাসিন্দা জ্বরে আক্রান্ত৷ কিন্তু অভিযোগ, পুরসভাকে বাসিন্দারা এই ঘটনা জানালেও তারা কোনও তৎপরতা দেখায় না৷ কাজেই এলাকায় ডেঙ্গুর লার্ভা রয়েছে নাকি তা প্রথমে বুঝতে পারে না বাসিন্দারা৷ পরে ওই এলাকার বাসিন্দা মায়া দাস জ্বরে আক্রান্ত হলে চিকিৎসক তাঁকে রক্ত পরীক্ষা করার নির্দেশ দেয়৷ রক্ত পরীক্ষায় ধরা পড়ে মায়া দাসও ডেঙ্গুতে আক্রান্ত৷

আরও পড়ুন: হাতে আর মাত্র কয়েকটা দিন! গ্রুপ-সি’তে প্রচুর নিয়োগ

যদিও এই প্রসঙ্গে বাসিন্দারা ক্ষোভ উগড়ে দেয় পুরসভার বিরুদ্ধেই৷ রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী তথা মালদহ ইংরেজবাজার পুরসভার ১০ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর কৃষ্ণেন্দু নারায়ণ চৌধুরী৷ এই ঘটনায় এখনও পর্যন্ত তাঁর কোনও বক্তব্য পাওয়া যায়নি৷ তবে এই গোটা বিষয়টি নিয়ে চরম অস্বস্তিতে পড়েছে ইংরেজবাজার পুরসভা৷ এই নিয়ে পুরসভা কর্তৃপক্ষের থেকেও কোনও প্রকার সদুত্তর পাওয়া যায়নি৷

প্রসঙ্গত, বিগত কয়েক বছরে রাজ্য জুড়ে ডেঙ্গু মারণ রোগের মতো ছেয়ে গিয়েছিল৷ তারপর জেলায় জেলায় বহু সতর্কতা প্রচার করা হয়৷ সমীক্ষায় উঠে এসেছে, মূলত মে থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বিশেষ করে গরম এবং বর্ষার সময়ে ডেঙ্গু জ্বরের প্রকোপ বেশি থাকে।

আরও পড়ুন: ভোডাফোন গ্রাহকদের জন্যে সুখবর! বিস্তারিত পড়ুন

শীতকালে সাধারণত এই জ্বর হয় না বললেই চলে। শীতে লার্ভা অবস্থায় এই মশা অনেক দিন বেঁচে থাকতে পারে। বর্ষার শুরুতে সেগুলো থেকে নতুন করে ডেঙ্গু ভাইরাসবাহিত মশা বিস্তার লাভ করে৷

সাধারণত শহর অঞ্চলে এর প্রাদুর্ভাব বেশি৷ তাই ডেঙ্গু জ্বরও ওই এলাকার বাসিন্দাদের বেশি হয়। বস্তিতে বা গ্রামে বসবাসরত লোকজনের ডেঙ্গু কম হয়। ডেঙ্গু ভাইরাস চার ধরনের হওয়ায় ডেঙ্গু জ্বরও চারবার হতে পারে।

তবে যারা আগেও ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়েছে, তাদের ক্ষেত্রে পরবর্তী সময়ে রোগটি হলে সেটি মারাত্মক হওয়ার ঝুঁকি থাকে। তাই জেলায় জেলায় ডেঙ্গুর হাত থেকে রক্ষা পেতে মশারির মধ্যে থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়৷ সেই সঙ্গে আশেপাশের এলাকা পরিষ্কার পরিচ্ছন্নও রাখতে হয়৷

আরও পড়ুন: বিয়ের ডেট ফাইনাল, ছাদনাতলার পথে ঐন্দ্রিলা-অঙ্কুশ