ওয়েলিংটন: সংযুক্ত আরব আমিরশায়ী ও শ্রীলঙ্কার পর আইপিএল আয়োজন নিয়ে প্রস্তাব দিল নিউজিল্যান্ড৷ চলতি টি-২০ বিশ্বকাপ স্থগিত ঘোষণা করতে চলেছে আইসিসি৷ আর এর ফলে আইপিএলের ত্রয়োদশ সংস্করণের ভাগ্য খুলতে চলেছে৷

অস্ট্রেলিয়ায় মাটিতে যে সময়ে অর্থাৎ অক্টোবরে-নভেম্বরে টি-২০ বিশ্বকাপ হওয়ার কথা ছিল৷ কিন্তু বিশ্বকাপ স্থগিত হয়ে গেলে এই ফাঁকা উইন্ডোতে আইপিএল আয়োজন নিয়ে আশাবাদী বিসিসিইআই৷ কিন্তু করোনা নামক অতি মহামারী ভারতে যেভাবে ক্রমশ তাঁর ধাবা বিস্তার করছে, তাতে দেশের মাটিতে এই বছর আইপিএল কোনওভাবেই সম্ভব নয়৷

তাই আইপিএল আয়োজন নিয়ে ইতিমধ্যেই উৎসাহ দেখিয়েছে বেশে কয়েকটি দেশ৷ প্রথম আইপিএল আয়োজনের প্রস্তাব দেয় সংযুক্ত আরব আমিরশাহী৷ তারপর প্রস্তাব দেয় শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ড৷ সর্বশেষ আইপিএলের ত্রয়োদশ সংস্করণ আয়োজন নিয়ে আগ্রহ দেখিয়েছে করোনামুক্ত নিউজিল্যান্ড৷

বিসিসিআই-এর কর্তা পিটিআই-কে জানিয়েছেন, ‘আইপিএল আয়োজনের প্রথম পছন্দ দেশের মাটিতে করা৷ কিন্তু তাতে যদি খেলোয়াড়দের নিরাপত্তা প্রশ্ন থাকে, তাতে আমরা এটি বিদেশেও আয়োজন করতে পারি৷ সংযুক্ত আরব আমিরশাহী ও শ্রীলঙ্কার পর নিউজিল্যান্ডও আইপিএল আয়োজনের প্রস্তাব দিয়েছে৷’

এছাড়া তিনি আরও বলেন, ‘আমরা সমস্ত স্টেকহোল্ডারদের (ব্রডকাস্টার, টিম, ইত্যাদি) এর সঙ্গে বসব এবং তারপর ঠিক করব। খেলোয়াড়দের নিরাপত্তা সর্বজনীন। এ নিয়ে কোনও আপস করা হবে না৷’

অতীতে বিদেশে আইপিএল অনুষ্ঠিত হয়েছে। ২০০৯ প্রথমবার আইপিএল হয়েছিল বিদেশের মাটিতে৷ দেশের সাধারণ নির্বাচনের কারণে পুরো টুর্নামেন্টটি হয়ছিল দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে৷ পরে ২০১৪ সালে একই কারণে আংশিকভাবে সংযুক্ত আরব আমিরশাহীতে বসেছিল আইপিএলের আসর৷

বিদেশে যদি হয়, তবে টুর্নামেন্টের আয়োজক সংযুক্ত আরব আমিরশাহী আবার প্রথম পছন্দ৷ আর শ্রীলঙ্কা একটি সাশ্রয়ী মূল্যের বিকল্প৷ অন্যদিকে COVID-19 থেকে মুক্ত নিউজিল্যান্ডে সমস্যা হল সময়ের প্রার্থক্য৷ নিউজিল্যান্ডের সঙ্গে, ভারতের সাড়ে সাত ঘন্টা সময় পার্থক্য রয়েছে৷ যদি বেলা সাড়ে বারটায় খেলা শুরু হয়, সর্বাধিক অফিস-যাত্রীরা খেলাটি সরাসরি দেখতে মিস করবেন।

এছাড়াও হ্যামিল্টন এবং অকল্যান্ড ছাড়াও বাকি শহরগুলি যেমন ওয়েলিংটন, ক্রাইশ্চার্চ, নেপিয়ার বা ডুনেডিনের মতো শহরগুলিতে যাওয়ার জন্য বিমানের প্রয়োজন হবে।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ