যোধপুর: বিশ্বকাপে ভালো খেললেও ফাইনালে বাংলাদেশের কাছে হেরে মাথা গরম করেছেন রবি বিষ্ণোই৷ এই ঘটনায় সমালোচনা শোনা গিয়েছে প্রাক্তনদের গলায়৷ টুর্নামেন্টে সর্বোচ্চ উইকেটশিকারী বরি’র এই ঘটনায় মা এতটাই ভেঙে পড়েছিলেন যে খাওয়া-দাওয়া ছেলেছিলেন তিনি৷

ঠাণ্ডা মাথার রবি যে এভাবে ম্যাচের মধ্যে মাথা গরম করতে পারে তা কল্পনাও করতে পারেননি মাঙ্গিলাল বিষ্ণোই৷ অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ ফাইনালে এই ঘটনার জন্য রবি বিষ্ণোইয়ের মা খাওয়া-দাওয়া ছেড়ে দিয়েছেন বলে জানান রবির বাবা৷ তিনি বলেন, ‘আমার ছেলেমেয়েদের মধ্যে সব চেয়ে ঠান্ডা মাথার হল রবি। ও মাঠে এভাবে মেজাজ হারাবে তা ভাবতেও পারেনি ওর মা৷’

বিশ্বকাপে সবচয়ে সফল বোলার বিষ্ণোই৷ ১৭টি উইকেট রয়েছে তাঁর ঝুলিতে৷ ফাইনালেও চারটি উইকেট নিয়েছিলেন ভারতীয় এই লেগ-স্পিনার৷ তবুও বিশ্বচ্যাম্পিয়ন হতে পারেনি ভারত৷ সেমিফাইনালে ভারত-পাকিস্তান লড়াই হলেও ম্যাচের উত্তাপ ছড়ায়নি৷ কারণ পাকিস্তানকে ১০ উইকেটে হারিয়ে টানা তৃতীয়বার অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ ফাইনালে উঠেছিল ভারত৷

প্রথমবার ফাইনালে ওটা বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ভারতের লড়াই উত্তেজনার পারদ আকাশচুম্বী হবে তা কেউ ভাবেননি৷ প্রথম ব্যাটিং করে ১৭৭ রান তুলে পঞ্চমবার বিশ্বজয়ের স্বপ্ন সত্যি হয়নি ভারতীয় যুব দলের৷ রান তাড়া করে শেষ পর্যন্ত রুদ্ধশ্বাস লড়াই জিতে ইতিহাস গড়ে বাংলাদেশে৷ ম্যাচের দুই দলের ক্রিকেটারদের মধ্যে উত্তপ্ত বাক্যবিনিময় এবং ম্যাচের যা হাতাহাতিতে গড়াই৷

প্রথমবার বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানকে ফিরিয়ে খারাপ ভাষা ব্যবহার করার অভিযোগ ওঠে বিষ্ণোইয়ের বিরুদ্ধে। প্রকাশ্যে স্লেজিংও করতেও দেখা গিয়েছে তাঁকে। এর জন্য আইসিসি-র শাস্তির মুখে পড়েছে ভারতীয় এই লেগ-স্পিনার। বাংলাদেশের তিন ক্রিকেটারের পাশাপাশি ভারতের দুই ক্রিকেটারকে শাস্তি দিয়েছে আইসিসি৷ পাঁচ ম্যাচের সাসপেনশন হয়েছে রবি’র৷

বিতর্কিত ফাইনালের পরে দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে দেশে ফিরে এসেছেন ভারতীয় ক্রিকেটার। রবির বাবা মাঙ্গিলাল বলেন, ‘রবি বাড়ি ফিরে আমাদের পুরো বিষয়টা জানিয়েছে। কেন সেদিন ও মাথা গরম করেছিল তাও আমাদের কে ও বলেছে। ম্যাচের শেষে বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা ভারতীয় ক্রিকেটারদের দিকে তেড়ে এসেছিল। আর সতীর্থদের বাঁচানোর জন্য ঝাঁপিয়েছিল রবি। তাতেই ও মেজাজ হারায়৷’

চারবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ভারতকে হারিয়ে প্রথমবার বিশ্বজয়ের স্বাদ পায় বাংলাদেশ৷ বাংলাদেশ অধিনায়ক আকরব আলি এই ঘটনা প্রসঙ্গে বলেন, ‘প্রতিপক্ষ সম্পর্কে আমাদের শ্রদ্ধাশীল হওয়া উচিত ছিল৷ আশা করি ভবিষ্যতে এই রকম আর ঘটনা ঘটবে না৷’

কলকাতার 'গলি বয়'-এর বিশ্ব জয়ের গল্প