সৌ: ডন নিউজ

করাচি: থর মরুভূমি বলতেই চোখের সামনে ভেসে ওঠে ধু ধু মরু প্রান্তর। ভারত ও পাকিস্তানের সীমান্তে ছড়িয়ে এই মরুভূমি৷ তবে সীমান্তের ওপারে পাকিস্তানের দিকে একটা অদ্ভুত ঘটনা ঘটেছে৷ রুখু থর হয়েছে সবুজ৷

বালি আর উষ্ণতার প্রাবল্যে থরের স্বাভাবিক জনজীবন প্রায় নেই বললেই চলে। বৃষ্টি সেখানে স্বপ্নের মত শোনায়। কিন্তু, প্রকৃতির অদ্ভুত খেয়াল। সেই থর মরুতেই মাথা তুলল গাছ। ধূসর প্রান্তর পরিণত হল সবুজ বনানীতে। সিন্ধ প্রদেশে থর মরুভূমিতে ঘটেছে এই অনবদ্য ঘটনা।

এই অঞ্চলের প্রায় ১৯৬৩৮ বর্গ কিলোমিটার এলাকা ২০১৩-১৫ সালে খরায় সম্পূর্ণ বিধ্বস্ত হয়ে যায়। খাবার না পেয়ে অপুষ্টিতে মারা যায় কয়েক হাজার শিশু। খাদ্য-বস্ত্র-বাসস্থানের খোঁজে পার্শ্ববর্তী অঞ্চলে পাড়ি দেয় স্থানীয় ১৫ লক্ষ মানুষ। কিন্ত, প্রায় তিন বছর পর আকাশ কালো করে হঠাৎ হাজির হয় মেঘেদের দল। বৃষ্টির আশায় বুক বাঁধেন স্থানীয় থর অঞ্চলের মানুষেরা।

আর এই কয়েক পশলা বৃষ্টিতেই যেন কেউ জাদুকাঠি ছুঁইয়ে দিয়েছে রুক্ষ শুষ্ক অঞ্চলে। একে একে মাথা তুলেছে নানা গাছ,গুল্ম। ফুটেছে বিভিন্ন ফুল স্বাভাবিক ভাবেই ফিরে এসেছে নানা পাখি থেকে শুরু করে বিভিন্ন জন্তু।

থর মরুভূমি এই নতুন জীবন ফিরে পেতেই স্থানীয় মানুষ ফিরে আসতে শুরু করেছেন ওই অঞ্চলে। বৃষ্টি হওয়ার পরেই ফসলের আশা নিয়ে শস্য বীজ ছড়ান বহু কৃষক। তেমনই থর অঞ্চলের চেলহারের বাসিন্দা ৭৮ বছর বয়সী দেবজি প্রথম বৃষ্টিপাতের পরেই ৪০ হাজার টাকার বীজ ছড়িয়েছেন।

গরু কিংবা উট দিয়ে চাষ হলেও প্রযুক্তির উন্নতির সঙ্গেই বেড়েছে ট্রাক্টরের ব্যবহার। ফলে, চার দিনের চাষের কাজ সম্পন্ন হয়ে যাচ্ছে মাত্র চার ঘণ্টাতেই। কিন্তু, এরফলে প্রাকৃতিক দিক দিয়ে ক্ষতি দেখছেন বহু পরিবেশকর্মী। ট্রাক্টরের চাকায় পিষে নষ্ট হয়ে যাচ্ছে বহু ছোট ছোট গাছ,গুল্ম। অথচ এইসব উদ্ভিদ পরিবেশ রক্ষার্থে ভীষণ জরুরি।

এছাড়াও খেতের ফসল বাঁচাতে পাখি কিংবা ছোট ছোট জন্তুদেরও তাড়াতে শুরু করেছেন কৃষকরা ফলে ক্ষতি হচ্ছে বাস্তুতন্ত্রে। বহু বছর বাদে ফসল ফলতে স্বভাবতই খুশি থরের স্থানীয় মানুষেরা। কিন্তু, ঠিক বর্ষার আগেই শস্যের বীজের দাম দোকানিরা কয়েকগুণ বাড়িয়ে দেয়। ফলে বীজ ব্যবসায়ীরা লাভের মুখ দেখলেও আতান্তরে পড়েন গরীব চাষিরা।

তাই এই ধরনের বৃষ্টি নির্ভর চাষাবাদ কতদিন চলবে? প্রশ্নটা সরকারের দিকেই ছুড়ে দিয়েছেন তরুণ সমাজ কর্মী গোবিন্দ মানথারানি। ভূগর্ভস্থ জল এই ধরনের কৃষির ক্ষেত্রে কার্যকরী হতে পারে কিন্তু এর জন্যে প্রয়োজন সঠিক পরিকাঠামো।

তবে রুক্ষ জমিতে অকাল ফলনে হাসি ফুটেছে এই প্রত্যন্ত এলাকার চাষিদের মুখে। আর এই হঠাৎ বৃষ্টিতে ধুলো-বালিতে ধূসর হয়ে যাওয়া থর মরুভূমি যেন হয়ে উঠেছে একটা জীবন্ত ক্যানভাস।