ওয়েলিংটন: চোট সারিয়ে টপ ফর্মে ফেরত আসাটা সময়সাপেক্ষ। জাতীয় দলে তাঁর জুনিয়র জসপ্রীত বুমরাহর সমর্থনে সমালোচকদের একহাত নিয়ে দিনকয়েক আগে এভাবেই এগিয়ে এসেছিলেন বঙ্গ পেসার মহম্মদ শামি। এবার বড় দাদার মত বুমরাহকে আগলালেন দলের সিনিয়র মোস্ট ইশান্ত শর্মা।

চোট সারিয়ে জাতীয় দলের প্রত্যাবর্তনের পর বুমরাহর ডেলিভারিতে পুরনো ঝাঁঝ উধাও। তবে মাত্র কয়েকটা ম্যাচ দেখে তরুণ স্পিডস্টারের দক্ষতা নিয়ে প্রশ্ন তোলার বিষয়টিকে মজার ছলে দেখছেন ল্যাঙ্কি পেসার। বুমরাহর পাশে দাঁড়িয়ে ওয়েলিংটন টেস্টের দ্বিতীয় দিনের শেষে ইশান্ত জানালেন, ‘এটা খুব মজার যে একটা ইনিংস দেখেই মানুষের ধারণা বদলে যায়। গত দু’বছর ধরে আমি, বুম (বুমরাহর ডাকনাম), শামি সঙ্গে অ্যাশ (অশ্বিনের ডাকনাম) অথবা জাড্ডু (জাদেজার ডাকনাম) প্রায় প্রত্যেক ম্যাচে বিপক্ষের ২০টি উইকেট তুলে নিয়েছি। একটা ইনিংসের নিরিখে মানুষ কীভাবে প্রশ্ন তোলে?’

জুনিয়র সতীর্থের সমর্থনে ইশান্তের আরও সংযোজন, ‘আমার মনে হয়ে বুমরাহ কী করতে পারে সেটা নিয়ে কারও সন্দেহ প্রকাশ করা উচিৎ। অভিষেকের পর থেকে দেশের জন্য ও যা করেছে তাতে ওকে নিয়ে কারও প্রশ্ন তোলা উচিৎ নয়।’

উল্লেখ্য, ওয়েলিংটনে প্রথম ইনিংসে ব্যাটসম্যানদের ভরাডুবির পর দ্বিতীয় দিনের শেষে ভারতীয় বোলারদের মধ্যে বল হাতে উজ্জ্বল একমাত্র অভিজ্ঞ ইশান্তই। ল্যাঙ্কি পেসারের ৩ উইকেটের সৌজন্যে ২১৬ রানে বিপক্ষের ৫ উইকেট তুলে নিতে পেরেছে ভারতীয় দল। ফিটনেস টেস্টে পাস করে ওয়েলিংটন টেস্টের মাত্র ৭২ ঘন্টা আগে দীর্ঘ বিমানযাত্রা করে ম্যাচ ভেন্যুতে পৌঁছন ইশান্ত। ম্যাচ শুরুর আগেরদিন মাত্র ৩ ঘন্টা ঘুমিয়ে জেট ল্যাগ কাটানো অভিজ্ঞ পেসারের এই পারফরম্যান্স সত্যিই প্রশংসার দাবি রাখে।

তবে প্রথম ইনিংসে ভারতের ১৬৫ রানের জবাবে দ্বিতীয়দিনের শেষে প্রথম ইনিংসে ৫১ রানে এগিয়ে নিউজিল্যান্ড। তৃতীয় উইকেটে অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন ও রস টেলরের ৯৩ রানের জুটিতে ভারতের রান টপকে যায় কিউয়িরা। ৪৪ রানে রস টেলর আউট হলেও শতরানের দিকে ভালোই এগোচ্ছিলেন অধিনায়ক উইলিয়ামসন। কিন্তু ৮৯ রানে শামির ডেলিভারিতে পরিবর্ত জাদেজার হাতে ধরা পড়েন তিনি।

উল্লেখ্য, ট্যুর ম্যাচ চলাকালীন বুমরাহর পাশে দাঁড়িয়ে দলের আরেক পেসার শামি বলেছিলেন সমালোচকরা সমালোচনা করার জন্য টাকা পায়। কিন্তু চোট সারিয়ে পুরনো মেজাজে ধরা দেওয়ার বিষয়টা সময়সাপেক্ষ। প্রসঙ্গত, নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে ৩ ম্যাচের ওয়ান-ডে সিরিজে খালি হাতেই শেষ করেছিলেন বুমরাহ। এরপর ট্যুর ম্যাচে ২ উইকেট তুলে নিয়ে ছন্দে ফেরার বার্তা দিলেও প্রথম টেস্টে এখনও অবধি উইকেট অধরা তরুণ স্পিডস্টারের।