চেন্নাই: শেষ টি-২০ ম্যাচে ক্যারিবিয়ানদের দুরমুশ করে ২-১ সিরিজ জিতলেও ওয়ান সিরিজের প্রথম ম্যাচে শুরুটা ভালো হল না ভারতের৷ চিপকে প্রথম ব্যাটিং করতে নেমে একশোর আগেই টিম ইন্ডিয়ার প্রথম তিন ব্যাটসম্যান ড্রেসিংরুমে ফিরে যায়৷ লোকেশ রাহুল (৬) ও বিরাট কোহলির (৪) পর ব্যক্তিগত ৩৬ রানে আউট হন রোহিত শর্মা৷ ৮০ রানে তিন উইকেট হারিয়ে লড়াই করছে ভারত৷

টি-২০ ক্রিকেটে বরাবরই রান তাড়া করতে পছন্দ করে টিম কোহলি। ওয়ান ডে ক্রিকেটে ছবিটা ঠিক উলটো। মুম্বইয়ে সিরিজের শেষ টি-২০ ম্যাচে শুরুতে ব্যাট করে দুরন্ত জয় তুলে নিয়েছে কোহলি অ্যান্ড কোং। স্বাভাবিকভাবেই টস ভাগ্য সঙ্গ না-দিলে ব্যাকফুটে থাকার মিথটা ভারত ভেঙে ফেলায় ওয়ান ডে সিরিজে নিঃসন্দেহে আত্মবিশ্বাস বাড়বে কোহলিদের। যদিও সিরিজের প্রথম ওয়ান ডে ম্যাচে আরও একবার টস হারলেন বিরাট।

চিপকে টস জিতে ভারতকে প্রথমে ব্যাটিং করতে পাঠান ওয়েস্ট ইন্ডিজ অধিনায়ক কাইরন পোলার্ড৷ কিন্তু টস হেরেও হতাশ হননি ক্যাপ্টেন কোহলি৷ কারণ টস জিতলে প্রথমে ব্যাট করতেন বলেও জানান বিরাট৷ ভারত অধিনায়ক বলেন, ‘টস জিতলে প্রথমে ব্যাট করতে চাইতাম। টস না-জিতেও তাই প্রথম ব্যাট করতে হওয়ায় খুশি। পিচ শুকনো দেখে ভালো লাগছে। আমি অবাক এই ভেবে যে, ওয়েস্ট ইন্ডিজ এই পিচে প্রথমে বল করার সিদ্ধান্ত নিল। ওয়ান ডে ক্রিকেটে প্রথম ব্যাট করাই আমাদের বিশেষ পছন্দের।’

কিন্তু ম্যাচের কয়েকওভারের মধ্যেই বিরাটকে ভুল প্রমাণ করলেন পোর্লাড৷ স্কোর বোর্ডে একশো রান ওঠার আগেই ভারতের সেরা তিন ব্যাটসম্যানকে ড্রেসিংরুমে ফেরত পাঠান ক্যারিবিয়ান বোলাররা৷ মুম্বইয়ে টি-২০ সিরিজের শেষ ম্যাচে এই তিন ব্যাটসম্যানই ওয়েস্ট ইন্ডিজ বোলারদের নিয়ে ছেলেখেলা করে স্কোর বোর্ডে ২৪০ রান তুলেছিলেন৷ ওপেনিং জুটিতে ১৩৫ রান যোগ করেছিলেন রোহিত-রাহুল৷ কিন্তু এদিন ওপেনিং জুটিতে মাত্র ২১ রান যোগ করে ভারত৷

মাত্র ২৫ রানে রাহুল ও বিরাটকে ড্রেসিংরুমে ফেরার রাস্তা দেখান শেলডন কটরেল৷ ১৫ বলে মাত্র ৬ রান করে হেটমাইয়ারের হাতে ক্যাচ দিয়ে আউট হন রাহুল৷ আর ৪ রান করে বিরাটকে বোল্ড করেন কটরেল৷ দ্রুত দুই উইকেট হারালেও শ্রেয়স আইয়ারকে নিয়ে ব্যাটিংয়ের হাল ধরেন রোহিত৷ কিন্তু ব্যক্তিগত ৩৬ রানে আলজেরি জোসেফের বলে শর্ট মিড-উইকেটে পোলার্ডের হাতে সহজ ক্যাচ তুলে দেন ‘হিটম্যান’৷

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও