মুম্বই: লোকসভা ভোট হোক কিংবা মহারাষ্ট্রের বিধানসভা নির্বাচন। সম্পর্কের টানাপোড়েন চলতেই থাকে৷ কখনও নরম তো কখনও গরম হয়ে ওঠা বিজেপির বন্ধু শিবসেনা এবার ভোটে না হলেও পুলওয়ামা কাণ্ডে মোদীর পাশেই থাকল৷ পুলওয়ামায় জঙ্গি হামলার পরিপ্রেক্ষিতে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে মাতশ্রী ভবন৷

পুলওয়ামার জঙ্গি হামলার ঘটনায় বিরোধী শিবিরের সমর্থন পাচ্ছেন মোদী। শুক্রবারই প্রধানমন্ত্রী বলেছেন এই হামলার জন্য যারা দায়ী তাদের শাস্তি পেতে হবে।নমোর সিদ্ধান্তে একমত হয়ে শিবসেনা প্রধান উদ্ধব ঠাকরে বলেছেন, পাকিস্তানে সরাসরি আক্রমণ করার সময় এসে গেছে।

ভোটের মুখে পুলওয়ামার ঘটনায় ইতিমধ্যেই চাপে বিজেপি।অন্যদিকে জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত ডোভালের জঙ্গি দমন নীতি নিয়েও বিতর্কের শেষ নেই। হামলার পর বিভিন্ন মহলেরই ধারণা ছিল মোদীর বিরুদ্ধেই সরব হবেন বিরোধী নেতারা।কিন্তু সর্ব দলীয় বৈঠকে মিলল সমর্থনই।

পুলওয়ামায় সিআরপিএফ জওয়ানদের ওপর জঙ্গি হামলার প্রতিবাদে ফুঁসছে গোটা দেশ। বহু সেনার মৃত্যুর পরে উঠছে প্রতিবাদের ঢেউ৷ ক্ষোভ ছড়াচ্ছে৷ শিবসেনা প্রধান বলেন, ” এটা শুধুমাত্র জঙ্গি হামলা নয়, আমাদের দেশের গোয়েন্দা সংস্থাগুলির ওপরও এটি একটি আক্রমণ। গোয়েন্দা সংস্থাগুলির ভূমিকা তাহলে কি? গোয়েন্দা সংস্থাগুলির ব্যর্থতা থাকে তাহলে তাদের অপসারণ করা উচিৎ। ২০১৬ সালের সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের পর এখন সময় এসেছে সরাসরি পাকিস্তানের ওপর ঝাঁপিয়ে পরার।”

উদ্ভব ঠাকরে বলেন , ” পাকিস্তানকে বুঝিয়ে দিতে দেশের সমস্ত মানুষকে এক হতে হবে। তাদের বুঝিয়ে দিতে হবে আমাদের দেশ মাথা নত করবেনা এবং আমরা তাদের উচিৎ শিক্ষা দেব।”

বলেন, নির্বাচন বা অন্য কিছুর কথা এই মুহূর্তে গৌণ কিন্তু ইটের বদলে পাটকেলটাই এখন সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ।