মুম্বই: মহারাষ্ট্রের পরে চমক দেখা যাবে গোয়াতেও। শুক্রবার এমনটাই জানালেন শিবসেনা সাংসদ সঞ্জয় রাউত।মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে উদ্ধব ঠাকরের শপথ নেওয়ার পরেরদিন এমনটাই জানালেন রাউত। যা দেখে মনে করা হচ্ছে প্রকারান্তরে বিজেপির বিরুদ্ধে কার্যত হুমকি দিলেন শিবসেনার মুখপাত্র৷

মহারাষ্ট্রে দীর্ঘ টালবাহানার পরে মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়েছিলেন শিবসেনা প্রধান উদ্ধব ঠাকরে। দীর্ঘ টালবাহানার পরে মহারাষ্ট্রের সরকারে এসেছিল শিবসেনা, কংগ্রেস এবং এনসিপি জোট। মহারাষ্ট্রের ১৮ তম মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়েছিলেন উদ্ধব।

গোয়ার প্রাক্তন উপ মুখ্যমন্ত্রী বিজয় সরদেশাই শিবসেনার সঙ্গে যোগাযোগ রাখছে বলে দাবি করেছেন রাউত। শিবসেনা সাংসদ আরও জানিয়েছেন গোয়াতে নতুন রাজনৈতিক ফ্রন্ট হতেন চলেছে। মহারাষ্ট্রের মত এই রাজ্যতেও এক নতুন চমৎকার আসতে চলেছে। সঞ্জয় রাউত জানিয়েছেন, বিজেপি ব্যতীত রাজনৈতিক সংগঠন তারা সারা দেশে গড়ে তুলতে চান। দেশের মানুষকে এক নতুন দীশা দেখাতে চান।

বিজয় সরদেশাই জানিয়েছেন তিনি সঞ্জয় রাউতের সঙ্গে দেখা করেছেন। তবে তা নিয়ে সরকার পরিবর্তনের কোন প্রশ্ন নেই। মহারাষ্ট্রে যা হয়েছে খুব দ্রুত তা গোয়াতেও হতে চলেছে। বিরোধীদের একসঙ্গে হতে হবে। তিনি জানিয়েছেন মহা বিকাশ আঘাদি যা মহারাষ্ট্রে তৈরি হয়েছে তা গোয়াতেও ছড়িয়ে পড়বে।

এই রাজ্যতে বিজেপিকে সরকার গড়ার বিষয়ে গোয়ার ফরোয়ার্ড দল যথেষ্ট সাহায্য করেছিল। সেই সময়ে কংগ্রেস নির্বাচনে সংখ্যাগরিষ্ঠতা লাভ করেছিল। ২০১৭ নির্বাচনে কংগ্রেসের দখলে গিয়েছিল ১৭ টি আসন।

গোয়ার মুখ্যমন্ত্রী মনোহর পারিক্কর মারা যাওয়ার পরে এই রাজ্যতে কিছুটা হলেও হোঁচট খেয়েছিল গেরুয়া শিবির। প্রমোদ সাওয়ান্তের সরকারের সময়ে বিজয় সরদেশাই উপ মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়েছিলেন। কিন্তু জুলাই মাসে অন্যান্য মন্ত্রীদের সঙ্গে তিনিও এই পদ থেকে সরে গিয়েছিলেন।

মহারাষ্ট্রের নির্বাচনে বিজেপি এবং শিবসেনা জোট বেঁধে নির্বাচনে লড়েছিল। কিন্তু নির্বাচনের পরে শিবসেনার দাবি না মানাতে জোট ভেঙে এনসিপি কংগ্রেসের সঙ্গে জোট বেধেছিল শিবসেনা। তবে এই রাজ্যতে রাষ্ট্রপতি শাসন চলাকালীন আচমকা মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়েছিলেন দেবেন্দ্র ফড়নবীশ। কিন্তু সংখ্যাগরিষ্ঠতা প্রমাণ করতে না পারাতে পদত্যাগ করতে হয়েছিল তাকে। আর মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে এই রাজ্যতে শপথ নিয়েছেন সেনা প্রধান উদ্ধব। আর তারপর থেকেই ধীরে ধীরে নিজেদের প্রভাব বিস্তার করতে শুরু করেছে সেনা।