নয়াদিল্লি: রবিবার রাত থেকেই ফের উত্তপ্ত হয়ে উঠল কাশ্মীর৷ উপত্যকায় সেনা মোতায়েন, মেহবুবা মুফতি এবং ওমর আবদুল্লাহর গৃহবন্দি থেকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের কাশ্মীর থেকে ৩৭০ধারা তুলে দেওয়ার প্রস্তাব, সব মিলিয়ে কাশ্মীর নিয়ে রাজনৈতিক পরিস্থিতি সরগরমের মাঝেই এবার দিল্লি মেট্রোতে জারি হল হাই অ্যালার্ট৷

একদিকে, কাশ্মীর, অন্যদিকে স্বাধীনতা দিবসের কথা মাথায় রেখে, মেট্রোযাত্রীদের নিরাপত্তায় সতর্কবার্তা জারি করা হয়েছে সোমবার৷ সিআইএসএফ ট্রুপ, কাউন্টার-টেরর রিঅ্যাকশন টিম এবং সিকিওরিটি গ্যাজেটস্ রয়েছে মেট্রো স্টেশনে যাতে যাত্রীরা হয়রানির শিকার না হন৷

পড়ুন: উত্তপ্ত কাশ্মীর পরিস্থিতি: Article 35A এবং 370 ঠিক কী বলছে

প্রসঙ্গত, একদিকে আর্টিকল ৩৭০ তুলে দেওয়ার প্রস্তাব দিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। অন্যদিকে, দেশে তৈরি হতে চলে আরও দুটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল।

এদিনের প্রস্তাবে বলা হয়েছে, কাশ্মীরের লাদাখ ডিভিশনে বহু মানুষ বাস করেন। তাঁরা খুব দুর্গম জায়গায় বসবাস করেন। তাই তাঁদের অনেক দিনের দাবি, যাতে লাদাখকে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল হিসেবে ঘোষণা করা হয়। তাই লাদাখকে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল হিসেবে ঘোষণা করা হবে, সেখানে কোনও বিধানসভা থাকবে না।

পড়ুন: কেন্দ্রের বড় সিদ্ধান্ত, কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে পরিণত হচ্ছে কাশ্মীর ও লাদাখ

এছাড়া জাতীয় নিরাপত্তার কথা মাথায় রেখে জম্মু ও কাশ্মীরকে আলাদা একটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল হিসেবে ঘোষণা করার কথা বলা হয়েছে এদিনের প্রস্তাবে। তবে সেখানে বিধানসভা থাকবে।

সোমবার রাজ্যসভায় আর্টিকল ৩৭০ তুলে নেওয়ার প্রস্তাব দিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। অমিত শাহের এই প্রস্তাবে উত্তাল রাজ্যসভা। কাশ্মীরের ‘স্পেশাল স্টেটাস’, আর্টিকল ৩৭০ তুলে নেওয়া হতে পারে, রাজ্যসভায় এই প্রস্তাবই দিলেন অমিত শাহ। রবিবার থেকেই এই বিষয়ে জল্পনা শুরু হয়ে গিয়েছিল। এরপর মধ্যরাতে ওমর আব্দুল্লাদের গৃহবন্দি করার পর সেই জল্পনা আরও জোরালো হয়।