কলকাতা: গত সপ্তাহেই সোনার দাম ৫০ হাজার টাকা হয়েছিল। থেমে থাকলো না রুপো। সোনার দেখাদেখি এবার রুপোর দাম ৫০ হাজার টাকা ছাড়িয়ে গেল। যার ফলে দুশ্চিন্তা বাড়িয়ে দিল যাদের বাড়িতে সামনে ছেলে বা মেয়ের বিয়ে রয়েছে। মেয়ে অথবা বৌমাকে গহনায় সাজাতে গিয়ে এবার মাথায় হাত সেইসব পরিবারের।

বুধবার কলকাতায় প্রতি ১০ গ্রাম ২৪ ক্যারেট সোনার ‌ দাম (জিএসটি সহ) গিয়ে পৌঁছয় ৫১,৩৪১ টাকা। যা সোনার দামে নতুন রেকর্ড। ‌ পাশাপাশি ২২ ক্যারেট সোনার দাম হয় ৪৮,৫৩৩ টাকা। পিছনে পিছনে দৌড়ে আসে রুপো। এই দিন প্রতি কিলোগ্রাম রুপোর বারের দাম গিয়ে পৌঁছয় ৫১,৯৫১ টাকা। বহুদিন পরে রুপোর দাম এতটা চড়ল।

যা পরিস্থিতি তাতে সোনা থেকে মুখ ফিরিয়ে আপাতত যারা রুপোর উপর ভরসা করেছিলেন সোনার পিছু পিছু এভাবে রুপোর দাম বাড়ায় তারা রীতিমতো বিপাকে পড়েছেন। তাছাড়া বৈদ্যুতিন যন্ত্রপাতি, গাড়ি দূষণ নিয়ন্ত্রণ ইত্যাদি ক্ষেত্রে এই ধাতুর ব্যবহার রয়েছে। এখন এই ধাতুর দাম বাড়ায় সেই সব শিল্পের পরিস্থিতি জটিল হবে বলে মনে করা হচ্ছে।

অবস্থা সামাল দিতে বিয়ের বাজেটে গয়না কেনার পরিমাণ কমানোর কথা ভাবতে হচ্ছে। কেউ কেউ আবার এই করোনা পরিস্থিতিতে বিয়ে পিছিয়ে দেওয়ার কথা ভেবেছে, তাদের আশা যদি পরে সোনা-রুপোর দাম কমে।

তবে শুধুমাত্র বিয়ে বলে নয়, বর্তমান পরিস্থিতিতে সঞ্চয়ের ক্ষেত্রে সুরক্ষা খুঁজছেন বহু মানুষ বলে মনে করছেন বাজার বিশেষজ্ঞরা। তার ফলে সোনা-রুপোয় লগ্নির প্রবণতা বেড়ে গিয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে। যদিও একাংশের ধারণা যে ভাবে এই দুই ধাতুর দাম বেড়ে গেল তাতে ক্রমশ মধ্যবিত্তের নাগালের বাইরে চলে যাচ্ছে।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ