ঢাকা: ভয়াবহ ডেঙ্গু জ্বরের কবলে প্রায় সমগ্র বাংলাদেশ। এই পরিস্থিতিতে স্বাস্থ্য মন্ত্রক কর্মীদের আসন্ন ঈদ উল আজহা ছুটি বাতিল করা হল। এই তালিকায় রয়েছে জনস্বাস্থ্য সম্পর্কিত অন্যান্য বিভাগও। ডেঙ্গু মোকাবিলায় এবার যুদ্ধকালীন তৎপরতা শুরু হয়েছে বাংলাদেশে।

দেশের ৬৪টি জেলার মধ্যে ৫১টিতে ছড়িয়েছে এই রোগের প্রাদুর্ভাব। রাজধানী ঢাকা যেমন ডেঙ্গু নগরী। ইতিমধ্যেই হাজার হাজার মানুষ এই রোগে আক্রান্ত। ভয়ঙ্কর এডিস এজিপ্টি মশার দ্রুত বংশ বৃদ্ধি হয়েছে। আসছে মৃত্যুর খবর। খোদ স্বাস্থ্য উপসচিবের স্ত্রীর মৃত্যু হয়েছে ডেঙ্গুতেই।

দ্রুত হারে ডেঙ্গু ছড়িয়ে পড়ায় উদ্বিগ্ন বাংলাদেশ সরকার। চিকিৎসক ও স্বাস্থ্য কর্মীদের ঢাকা ছেড়ে বাইরে যাওয়াতে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। যেসব চিকিৎসক ট্রেনিংয়ে আছেন, তাঁদের ট্রেনিং থেকে নিজ নিজ কর্মস্থলে যোগ দিয়ে চিকিৎসা করতে বলা হল।

এডিস এজিপ্টি মশার হামলা। সেই হামলায় ডেঙ্গু জ্বরে কাবু বাংলাদেশ। মহামারির আকার নিচ্ছে এই মশা বাহিত রোগ। হাজারে হাজারে আক্রান্ত। প্রতি মুহূর্তেই সংখ্যাটা ছাড়াচ্ছে দ্রুত। এই মুহূর্তে বাংলাদেশ হল ডেঙ্গু আক্রান্ত দেশ।

বিশেষজ্ঞদের আশঙ্কা এরকম চলতে থাকলে বাংলাদেশ থেকে প্রতিবেশী ভারতের সংলগ্ন রাজ্যগুলিতে ডেঙ্গু ছড়ানোর সম্ভাবনা প্রবল। পশ্চিমবঙ্গের কলকাতা সংলগ্ন এলাকাগুলিতে এমনিতেই ডেঙ্গু ছড়ায়।
বিবিসি জানাচ্ছে, ডেঙ্গুতে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা যে হারে বাড়ছে তাতে উদ্বেগের কারণ থাকছেই। শুধু বাংলাদেশ নয়, থাইল্যান্ড ও ইন্দোনেশিয়া জুড়েও এই রোগের কারণে শুরু হয়েছে আতঙ্ক। ইন্দোনেশিয়া সরকার শুরু করেছে যুদ্ধকালীন তৎপরতায় মশা মারার কাজ।