নয়াদিল্লি: কিছুদিন আগে দক্ষিণ চিন সাগরেই মহড়া দিচ্ছিল চিনা নৌসেনা৷ এবার পালা আমেরিকার৷ মাত্র ২০ মিনিটের ব্যবধানে USS Theodore Roosevelt ক্যারিয়ার থেকে উঠল ও নামল ২০টি F-18 ফাইটার জেট৷ দক্ষিণ চিন সাগরে মার্কিন মিলিটারির ট্রেনিং চলছিল বলে জানানো হয়েছে৷

স্ট্রাইক গ্রুপ কম্যান্ডার রিয়ার অ্যাডমিরাল স্টিভ কোয়েহলের জানিয়েছেন, তাঁরা চারপাশে চিনা জাহাজ দেখতে পেয়েছেন৷ কিন্তু তারা শুধু ট্রেনিংই করছেন বলে মন্তব্য করেন তিনি৷

দক্ষিণ চিন সাগরে চিনের বায়ুসেনা ও নৌসেনার বিশাল মহড়ার পরপরই USS Theodore Roosevelt সেখানে ট্রেনিং করল৷ তারও আকাশ ও জল, দুই পথেই মহড়া দিল৷

কিছুদিন আগেই শোনা গিয়েছিল, বেজিংয়ের উপস্থিতি সত্ত্বেও দক্ষিণ চিন সাগরে মার্কিন নৌবাহিনীর টহল দেওয়া বন্ধ হবে না৷ উত্তেজনা বাড়িয়ে এমনটাই হুঁশিয়ারি দিয়েছিল আমেরিকা৷ বলেছিল, এই সাগরে টহল আমেরিকা অব্যাহত রাখবে৷ ম্যানিলা উপসাগরে নোঙ্গরকারী মার্কিন বিমানবাহী রণতরি ইউএসএস কার্ল ভিনসন থেকে একথা বলেছিলেন লে কমোডর টিম হকিন্স৷ তিনি আরও দাবি করেন, দক্ষিণ চিন সাগরে তৎপরতা, প্রশিক্ষণ এবং উড্ডয়ন করার অধিকার আন্তর্জাতিক আইনে দেওয়া হয়েছে। গত সাত দশক ধরে এই অঞ্চলে মার্কিন নৌ বাহিনী টহল দিচ্ছে উল্লেখ করে তিনি দাবি করেন, নিরাপত্তা এবং অবাধ বাণিজ্য নিশ্চিত করতে এই তৎপরতা চালানো হচ্ছে। প্রায় গোটা দক্ষিণ চিন সাগরের ওপর কর্তৃত্ব দাবি করছে বেজিং। এই নিয়ে স্থানীয় দেশগুলোর সঙ্গে চিনের টানাপড়েন চলছে।
তবে শুধু চিন নয়৷ একাধিক দেশ দক্ষিণ চিন সাগরে মহড়া দেয়৷