কলকাতা: সকাল থেকেই ফোন আসছিল৷ সদ্য নির্বাচিত সাংসদরা অপেক্ষায় ছিলেন মন্ত্রিসভায় কার কার জায়গা হবে৷ অবশেষে শিঁকে ছিড়েছে রায়গঞ্জের ভাগ্যে৷ মন্ত্রী হচ্ছেন সাংসদ দেবশ্রী চৌধুরী৷ বাবুলের পর বাংলা পাচ্ছে আরও এক মন্ত্রীকে৷ যদিও কোন মন্ত্রক তা নির্ধারণ করা হয়নি৷ তবে সকালেই প্রধানমন্ত্রীর দফতর থেকে ফোন পেয়েছেন দেবশ্রী৷

অবশ্য অন্যদের মতো ফোনের অপেক্ষায় উৎকণ্ঠায় হয়তো তাঁকে কাটাতে হয়নি৷ কারণ রায়গঞ্জে অমিত শাহ বলেই গিয়েছিলেন, দেবশ্রীকে জেতালে তাঁকে মন্ত্রিসভায় নিয়ে যাবেন৷ অমিতের কথা শুনে রায়গঞ্জবাসী দেবশ্রীকে দু’হাত উপুড় করে ভোট দেয়৷ এখন রায়গঞ্জবাসীকে দেওয়া প্রতিশ্রুতি রক্ষার পালা বিজেপি তথা অমিত শাহের৷ তাই অন্যান্য বাংলার বিজেপি সাংসদদের মতো দেবশ্রী খানিক নিশ্চিন্তে ছিলেন৷

বালুরঘাটের খাদিমপুরের বাসিন্দা দেবশ্রী চৌধুরীকে এবারে রায়গঞ্জ লোকসভা কেন্দ্রে টিকিট দিয়েছিল বিজেপি। একদিকে বিদায়ী লোকসভার সাংসদ সিপিএমের মহম্মদ সেলিম অন্যদিকে কং-নেত্রী তথা প্রয়াত প্রিয়রঞ্জন দাশমুন্সির স্ত্রী প্রাক্তন সাংসদ দীপা দাশমুন্সি। হেভিওয়েট দুই প্রতিপক্ষকে হারিয়ে জয়ী হন তিনি।

দেবশ্রী চৌধুরী একসময় বালুরঘাট বিধানসভায় বিজেপি প্রার্থীও হয়েছিলেন। অত্যন্ত লড়াকু ও প্রতিবাদী বালুরঘাটের মেয়ে দেবশ্রী নিজের জোরে বিজেপির রাজ্য কমিটির অন্যতম নেত্রী হিসেবে গণ্য হন। ভোটে জিতে মোদীর মন্ত্রিসভায় ঠাঁই হওয়ায় রায়গঞ্জের পাশাপাশি খুশি বালুরঘাটের মানুষও।

এই ব্যাপারে দিল্লি থেকে সাংসদ দেবশ্রী চৌধুরী কলকাতা২৪x৭ এর প্রতিনিধিকে সরাসরি ফোনে জানিয়েছেন যে তাঁকে পিএমও থেকে ফোন করা হয়েছে৷ তাঁকে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় শপথ নেওয়ার কথা জানানোও হয়েছে। দেবশ্রীর সঙ্গেই শপথ নেবেন বাংলার আরও এক সাংসদ বাবুল সুপ্রিয়৷

Proshno Onek II First Episode II Kolorob TV